অর্থ ও ব্যবসা-বাণিজ্য

অর্থ ও ব্যবসা-বাণিজ্যঃ

অর্থ ও ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্কিত কয়েকটি বিষয় এখানে তুলে ধরলাম।

প্রথমঃ

রুজী বৃদ্ধি ও সকল প্রকার সমস্যা হইতে মুক্তির আমলঃ

রুজী বৃদ্ধি িএবং সকল প্রকার কঠিন বিপদ হইতে মুক্তির জন্য সূরা ওয়াক্কেয়ার খতম্ শরীফ পাঠ করা অতিশয় ফলদায়ক। খতম্ পাঠ করিবার নিয়ম হইতেছে এই যে, বুধবার দিন আছরের নামাজের ওয়াক্তের পূর্বক্ষণে গোসল করতঃ আউয়াল ওয়াক্তে আছরের নামাজ আদায় করিবে। তাহার পর বসা অবস্থায় একবার সূরা ওয়াক্বেয়া পাঠ করিবে। দ্বিতীয় দিন উক্ত নিয়মে গোসল করিয়া নামাজ আদায় করিয়া সূরা ওয়াক্বেয়া দুইবার পাঠ করিবে। উক্ত নিয়মে তৃতীয় দিন তিনবার,  চতুর্থ দিন চার বার, পঞ্চম দিন পাঁচ  বার পাঠ করিবে। এই নিয়মে দৈনিক একবার করিয়া বাড়াইয়া পড়িতে চল্লিশ দিনের দিন চল্লিশবার পড়িয়া খতম্ শেষ করিবে। এবং প্রত্যহ খতম্ পড়া যেন মাগরিব নামাজের পূর্বেই শেষ হয়।

দ্বিতীয়ঃ

রুজী বৃদ্ধির জন্য পরীক্ষিত আমলঃ

যেকোন চন্দ্র মাসের প্রথম দিন রাত্রে চাঁদ দেখিবে, তখন সূরা ফাতেহা এক হাজার মরতবা পাঠ করিয়া নিম্নোক্ত দোয়াটি চল্লিশ মরতবা পাঠ করিয়া আল্লাহ পাকের দরবারে নিজ উদ্দেশ্য সফলের জন্য রোনাজারী সহকারে মোনাজাত করিলে, আল্লাহ তায়ালা তাহার রিজিক বৃদ্ধি করিয়া দিবেন। কখনো রিজিকের অভাব হইবে না। দোয়াটি এইঃ-

উচ্চারণঃ-“রাব্বানা আনজিল অালাইনা মাত্রদাতাম্ মিন্নাচ্ছমাত্র তাক্‌না লানা ঈদান লি-আউয়ালিনা ওয়া অাখিরিনা, ওয়া আয়াতাম, মিনকা ওয়ারজু ক্বনা ওয়া আন্‌তা খাইরুর রাজিক্বীন।”

তাহার পরে নিম্নের দোয়াটি বিশবার পাঠ করিবে।

উচ্চারণঃ- “ওয়া মাঁইয়্যাত্তাক্বিল্লাহা ইয়াযআল লাহুু মাখ্‌রাজান্‌ ওয়া ইয়ার যুকুহু মিন্ হাইছু লা ইয়াহ্‌তাছিব ওয়া মাইয়্যা তাওয়াক্‌কাল আলাল্লাহি ফাহুয়া হাছবুহু, ইন্নাল্লাহা বালিগু আমরিহী ক্বাদ জাআলাল্লাহু  লিকুল্লি শইয়িন, ক্বাদ্‌রা।”

তৃতীয়ঃ

আজ আমি আপনাদেরকে ব্যবসায় সাফল্য লাভের উপায় সম্পর্কে বলবো। ব্যবসায় সফল হওয়ার উপায় এর জন্য এমন দুইটি যন্ত্র বা নকশা নিচে দিয়েছি। যা দ্বারা আপনারা যেকোন ব্যবসায় সহজেই উন্নতি লাভ করতে পারবেন।

প্রথম যন্ত্রটি যেকোন কালি দিয়ে পরিষ্কার কাগজে এঁকে দোকানে বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পূর্ব দিকের দেওয়ালে লাগিয়ে দিবেন।

দ্বিতীয় যন্ত্রটি কাগজে এঁকে আপনার দোকানে বা প্রতিষ্ঠানে কেশ বক্সে রেখে দিবেন। এই যন্ত্র দুটি রাখার ফলে আপনি ব্যবসায় খুব দ্রুত সাফল্য লাভ করবেন।

চতুর্থঃ

অনেকেরই বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেগুলো একসময় অনেক ভাল চলতো কিন্তু এখন একদমই চলে না। অথবা যারা নতুন দোকান বা প্রতিষ্ঠান করেছেন এবং কেনা-বেচা বা প্রতিষ্ঠান চলছে না তাদের জন্য এই মন্ত্র অত্যন্ত কার্যকর।

মন্ত্রঃ “ভংবর বীর তু চেলা মেরা, খোল দুকান কহা কর মেরা। উঠে জো ডন্ডী বিকে জো মাল, ভংবর বীর কী সৌং নহিজায়।।”

প্রয়োগ বিধিঃ- রবিবার সকালে গোসল করে এক হাতে মাস কলাইয়ের ডাল নিয়ে ১০৮ বার উক্ত মন্ত্র জপ করে ঐ ডালের দানা দোকানের মধ্যে ছিটিয়ে দিলে বিক্রি অবশ্যই বাড়বে।

পঞ্চমঃ

যদি ব্যবসা বা দোকানে কাজ কারবার মন্দা হয় ও আমদানী বন্ধ হয়ে যায় তবে এক চিমটি আটা ব্যবসায় মুখ্য স্থান বা দোকানের প্রধান দরজার সামনে ফেলতে হবে এবং বলতে হবে এতে যার নজর পড়বে তার ক্ষেত্রেই কার্যকর হবে। এই ক্রিয়া শুল্কপক্ষের প্রতিপদ থেকে পূর্ণিমা পর্যন্ত লাগাতার করতে হবে। এটা করার সময় কেউ যেন না দেখে, এটা চুপচাপ করতে হবে।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}