অর্থ লাভের জন্য লেবুর চমৎকারী টোটকা!

অর্থ লাভের জন্য লেবুর চমৎকারী টোটকা!

হ্যালো ভিউয়ারস্ আমাদের লজ্জাতুন নেছা ওয়েব সাইটের পক্ষ্য থেকে আপনাদের স্বাগতম।।।

আজ আমি একটি খুব ফলপ্রদ ও সহজসাধ্য টোটকা নিয়ে উপস্থিত হয়েছি। যা আপনারা খুব সহজেই প্রয়োগ করতে পারবেন। একটি লেবুকে চার টুকরা করে চুপচাপ এক জায়গায় ফেলে দিন। ফলে এমন টাকা পয়সা আসবে যা আপনি সামলাতে পারবেন না। তাই দরিদ্রতা দূর করতে ও সহজ সরল টোটকাটি জানতে হলে। আলোচনার শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

জিবনে সুখ ও স্বাছন্দের জন্য অর্থ একটি অপরিহার্য্য উপাদান। আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল জিবন যাপন করার স্বপ্ন কম বেশি সকলের মাঝে থাকলেও সবাই আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল হতে পারেন না। সব সময় কোন না কোন জিনিসের অভাব লেগেই থাকে। আর এই অর্থ অভাবের প্রধান কারণ হচ্ছে বিভিন্ন প্রকার বাস্তু দোষ ও অশুভ শক্তির প্রভাব। আপনার উপর এই সব অশুভ শক্তির প্রভাব থাকলে আপনি কখনোই বিত্তশালী হতে পারবেন না। আপনি টাকা পয়সা উপার্জন করলেও সেই উপার্জনকৃত টাকা পয়সা আপনার কাছে থাকবে না। তবে একটি লেবুর সাহায্যে চিরতরে এসব থেকে নিস্তার থাকতে পারেন। প্রাচীন কাল থেকেই বিভিন্ন তন্ত্র মন্ত্রে লেবুর প্রয়োগ হয়ে আসছে। লেবুর মধ্যে এমন একটি শক্তি রয়েছে যা অন্য কোন জিনিসের মধ্যে তা নেই। তাই দরিদ্রতা দূর করতে এবং অর্থপ্রাপ্তিতে উৎপন্ন হওয়া সকল বাঁধা দূর করার জন্য এই সহজ সরল টোটকাটি প্রয়োগ করতে পারেন।

এর জন্য যেকোন শনি অথবা মঙ্গলবার দিন একটি লেবু পানিতে ডুবিয়ে রেখে দিন। অর্থ্যাৎ একটি পাত্রে পানি ভর্তি করে তার ভিতরে একটি লেবু রেখে দিন। তার পর দিন পানি থেকে লেবুটি তুলে আপনার মাথার উপর লেবুটি সাতবার ঘুরাবেন। তারপর একটি ধারালো চাকু দিয়ে লেবুটিকে চার টুকরা করে নিন। তারপর  এই চারটুকরা লেবু কোন শ্মশান ঘাট বা কোন নির্জন স্থানে পুঁতে দিন। তারপর বাড়ি ফিরে এসে সেই পাত্রের পানি গুলো আপনার ঘর থেকে শুরু করে পুরো বাড়িতে ছিঁটিয়ে দিন।  এর ফলে আপনার ঘর ও বাড়ি থেকে অশুভ শক্তি দূর হবে ও আপনি যে সব কারণে অর্থ লাভের রাস্তা থেকে বঞ্চিত ছিলেন সেই সকল বাঁধা দূর হবে। প্রত্যাশিত ও অপ্রত্যাশিত মাধ্যম থেকে আপনার প্রচুর টাকা পয়সা আসতে থাকবে। যা আপনার দরিদ্রতা দূর করবে ও আপনি হবেন আর্থিক ভাবে সচ্ছল।

বিঃদ্রঃ- এই প্রয়োগ টি ব্যবহারের পূর্বে কোন সিদ্ধ গুরুর অনুমতি নিন। তারপর প্রয়োগ করুন এবং গুরুকে খুশি করতে কিছু হাদিয়া দিন। আর যদি কোন গুরুর অনুমতি নিতে না পারেন। তাহলে আমাদের যোগাযোগ পেইজে গিয়ে যোগাযোগ করুন। আমাদের এই আলোচনাটি সবার কাছে শেয়ার করার জন্য অনুরোধ  রইলো।।। ধন্যবাদ।।।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}