অর্ধাঙ্গ (প্যারালাইসিস) রোগ নিরাময়ের মন্ত্র

অর্ধাঙ্গ (প্যারালাইসিস) রোগ নিরাময়ের মন্ত্রঃ

বহুযুগ আগে থেকেই অনেক তান্ত্রিকগণ নিম্নলিখিত মন্ত্রগুলির দ্বারা বিভিন্ন অর্ধাঙ্গ (প্যারালাইসিস) রোগ দূর করেছেন। কিন্তু বর্তমান যুগে অনেক চিকিৎসা থাকায় এইসব তন্ত্র মন্ত্র দোয়া তাবিজ ইত্যাদি আর মানুষ বিস্বাস করে না। আপনারা হয়তো অনেকেই দেখেছেন, অনেক ব্যক্তিগণের অনেক চিকিৎসা করার পরও অর্ধাঙ্গ (প্যারালাইসিস) রোগ ভালো হয় নি, তারা বহুদিন থেকেই বিছানায় পড়ে রয়েছেন, তাদের উদ্দেশ্যে এই মন্ত্রগুলি উৎসর্গ করে দিলাম। আপনারা শেষ বারের মতো তাদেরকে এই মন্ত্রগুলি প্রয়োগ করতে অনুরোধ জানাবেন। আশা করি উপরওয়ালার অশেষ মেহেরবানীতে তার সেই অর্ধাঙ্গ (প্যারালাইসিস) রোগ শেরে যাবে।

 “রাম রতি সীতা সতী

এই ঘি পড়িয়া দিলাম

ফান্নার অর্ধাঙ্গের বিষ

খেদাবেন মা হর পার্বতী।”

প্রয়োগ বিধিঃ- মন্ত্রটা একদমে নয় বার পড়ে পাঁচ বছরের পুরাতন ঘিয়ে ফুঁ দিয়ে তারপর সেই ঘি দিনে পাঁচবার রোগীর শরীরে মালিশ করতে হবে। আমিষ, টক, ঝাল তিন মাস খাওয়া চলবেনা।

দ্বিতীয় প্রয়োগঃ

অর্ধাঙ্গ (প্যারালাইসিস) রোগ নিরাময়ের মন্ত্রঃ

“কালী কালামী নাম পরী স্বর্গ ছাড়ি

মুন্ডু মালা গলে পরি

আমি যেন এই ঘি পড়া

চালান দিছি

যা তুই স্বর্গে যা বেটি

যদি স্বর্গে না যাবি

শিবের মাথায় দুই পা মুছিবি।”

প্রয়োগ বিধিঃ- মন্ত্রটা একদমে নয় বার পড়ে পাঁচ বছরের পুরাতন ঘিয়ে ফুঁ দিয়ে তারপর সেই ঘি দিনে পাঁচবার রোগীর শরীরে মালিশ করতে হবে। আমিষ, টক, ঝাল তিন মাস খাওয়া চলবেনা।

বিঃদ্রঃ- উক্ত মন্ত্রগুলি প্রয়োগ করার পূর্বে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। ধন্যবাদ। আলোচনাটি সবার সাথে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।।