আজকের রাতের ঘুম আপনার জীবন বদলে দেবে

আজকের রাতের ঘুম আপনার জীবন বদলে দেবেঃ-

হ্যালো ভিউয়ারস্ লজ্জাতুন নেছা ওয়েব সাইটের পক্ষ্য থেকে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের আজকের বিষয় হলো যেভাবে ঘুমালে জিবনের বিভিন্ন দিক গুলোর পরিবর্তন করা সম্ভব। সেই সব বিষয় নিয়ে আজকের আলোচনা। চলুন তাহলে শুরু করা যাক-

আমাদের অবচেতন মন রাতে ঘুমানোর সময় সবচেয়ে বেশি এ্যক্টিভ থাকে। আপনি যদি রাতে ঘুমাবার আগে আজকের ভিডিওতে দেওয়া টেকনিক গুলো ব্যবহার করেন। তাহলে হলে আপনি সকাল বেলা ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে নিজেকে অন্যরুপে আবিষ্কৃত করবেন। আপনার ভিতরে প্রচন্ড রকমের পজিটিভিটি এ্যক্টিভ হবে এবং নেগিটিভিটি চলে যাবে আপনাকে ছেড়ে বহুদূরে। যেমন অন্ধকার আলোর কারনে দুরে চলে যায় তেমনি আপনার মধ্যে থেকেও অন্ধকারময় সময় অনেক দূরে চলে যাবে। আর সেই সাথে আপনি আপনার মাঝে এক নতুন পজেটিভিটি রুপ দিতে পারবেন। আজকে আপনাদের মাঝে আমরা এমন কিছু টেকনিক শেয়ার করবো যা সাইন্স পর্যন্ত স্বীকৃতি দিয়েছে। আপনি যদি ঘুমানোর আগে এই সব টেকনিক অনুসরণ করেন তাহলে আপনার জিবনে বা আপনার দ্বারা কখনেই ভুল কাজ হতে পারবে না। তাহলে আলোচনা শুরু করা যাক- আমরা যখন ঘুমোতে যাই তখন আমরা সারাদিনের নানান কাজের টেনশন নিয়ে ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়ি, কিংবা অনেকেই রয়েছে কানের মধ্যে হেডফোন দিয়ে গান শুনতে শুনতে ঘুমিয়ে পড়ি, বন্ধুগণ এতে ক্ষতি হচ্ছে আমাদের মাইন্ডের, এরকম করে ঘুমানোর ফলে আমাদের মাইন্ডের যে কি পরিমান ক্ষতি হচ্ছে সেটা বলা সম্ভব নয়! এবার কথা হচ্ছে আপনি যদি একজন সাক্সেসফুল মানুষ হতে চান তাহলে এই সব করা থেকে বিরত থাকুন। আমরা জানি ধুমপান ও মদ পানে আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষ্যে ক্ষতিকর। কিন্তু আমরা এটা জানার পরেও সেগুলো আমরা পান করি। আমরা জানি মিথ্যে কথা বলা খারাপ অভ্যাস, কিন্তু তবুও মিথ্যে বলি।কারন এগুলো সব আমাদের অবচেতন মনের আইডিন্টি হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এবার সময় এসেছে নিজেকে বদলানোর, আজকের উল্লেখিত টেকিনিক গুলো অনুসরণ করলে আপনি সকালে ঘুমথেকে জাগ্রত হয়ে নিজেকে অনেক ফ্রেস মনে করবেন। অর্থ্যাৎ কোন আলস্য ভাব থাকবে না। আপনার নিজেকে অনেক পজেটিভ মনে হবে এবং আপনি আপনার মাইন্ডকে কন্ট্রোল করতে পারবেন। রাতে ঘুমানোর আগে আপনার মাইন্ড থেকে সমস্ত নেগেটিভিটি দূর করে দিন। ১ থেকে ৩ মিনিট আপনার স্বাস-প্রস্বাসের দিকে মনোযোগ দিন। সারাদিনে কি কি করলেন সেটা নিয়ে একটু চিন্তা করুন। নরমালি আমরা হয়তো সারাদিনে কিছু ভালো কাজ করি ও কিছু খারাপ কাজ করি, প্রথমে আপনি যেগুলো ভালো কাজ করেছেন, সেগুলোকে নিয়ে একটু পজেটিভিটি ফিল করুন। আর যেগুলো খারাপ কাজ করেছেন সেগুলো কে ঘৃর্ণার দৃষ্টিতে দেখে আপনার মনকে বলুন আগামীকাল থেকে যেন আপনার দ্বারা এই সকল খারাপ কাজ না হয়। আপনার মনের বাড়িতে একটি মেন্টাল মুভির ছবি আবিষ্কৃত করুন। যেন আপনি সেগুলোকে দেখতে পাচ্ছেন, ঘুমনোর পর আপনার মাইন্ড অনেক গুলো স্টেজ হয়ে যায়। যেমনঃ- ডেল্টা, থিটা, আলফা, বিটা এবং গামা। আপনি যখন ঘুমাতে যান, তখন আমাদের মাইন্ড ডেল্টা অবস্থায় থাকে। থিটার অবস্থায় আপনার একটু একটু ঘুম পেতে আরম্ভ করে। আলফার অবস্থায় আপনি ধীরে ধীরে ঘুমের গভীরে প্রবেশ করতে থাকেন। বিটার স্টেজে আপনি গভীর ঘুমে আছন্ন হয়ে পড়েন। মাইন্ডের এই বিটার স্টেজেই আমাদের অবচেতন মন সব থেকে বেশি এ্যক্টিভ থাকে। আর গামার স্টেজে আমরা গভীর ভাবে ঘুমিয়ে পড়ি। বিটা থেকে যখন আপনি গামার স্টেজে যান তখন আপনার মাইন্ডে কিছু না কিছু চলতেই থাকে। আর আমরা ঘুমোতে যাওয়ার সময় যদি গান শুনতে শুনতে বা টেনশন ফিল করতে করতে ঘুমিয়ে পড়ি ঠিক বিটা ও গামার স্টেজে গিয়েও সেই গান বা টেনশন চলতেই থাকে। যেটা আমাদের মাইন্ডের জন্য খুবই ভয়ানক। আর যার ফলেই আমরা সকাল বেলা ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে ফ্রেস ফিল করি না। ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে যাওয়ার পর তাই আমাদের মাইন্ডের ভিতরে নেগেটিভিটি জায়গা করে নেয়। বন্ধুগণ আমরা ঘুমাই কেন জানেন, আমরা ঘুমানোর সময় আমাদের মাইন্ড এবং বডি বিশ্রাম করে। আর পরের দিন যাতে আমরা ভালো ফিল করি ও সকল কাজ কর্ম মন দিয়ে করতে পারি। কিন্তু আমাদের ঘুমের আসল উদ্দেশ্যই যদি পূর্ণ না হয়! তাহলে ঘুমিয়ে কি লাভ! আপনি আজকের পর থেকে ঘুমোতে যাওয়ার আগে নেগিটিভিটি কোন কিছুই ভাববেন না। আপনার যেগুলো নেগিটিভ দিক সেগুলোর দিকে লক্ষ্য দিবেন না। বরং আপনি আপনার মাইন্ড কে নির্দেশ দিন আপনি খুবই হ্যাপি। আপনি একজন পজেটিভ ব্যক্তিত্বের মানুষ। আপনি নিজের সম্পর্কে পজেটিভ ভাবুন। আপনি যখন পজেটিভ চিন্তা ভাবনা নিয়ে ঘুমিয়ে পড়বেন। তখন আপনার মাইন্ড বিটা থেকে গামার স্টেজের গ্যাপের মধ্যেই সেগুলোকে বার বার রিপিট করবে, যেগুলো আপনি ঘুমানোর আগে ভাবলেন। এবার আপনি যদি চান যাতে, সকালে ঘুম থেকে উঠে নিজেকে অনেক ফ্রেস মনে হয়! আলস্য যেন আপনাকে ছুঁতেও না পারে, তাহলে আপনি পজেটিভ কিছু ভাবার সাথে আপনার স্বাস-প্রস্বাসের দিকে নজর দিন। কিছুক্ষণ পরে দেখবেন আপনার মাইন্ড থেকে সব নেগেটিভ চিন্তা দূরে চলে গেছে। আপনার বডিকে এই মুহূর্তে অনেক আরাম দায়ক ফিল হবে। এভাবেই আপনি ধীরে ধীরে ঘুমিয়ে পড়বেন। আর সেই ঘুমও হবে একদম গভীর থেকে গভীরে। আর সকালে ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে দেখবেন, আপনাকে অনেক হাসি খুশি ও পজেটিভিটি মনে হচ্ছে।

বিঃদ্রঃ- উপরোক্ত আলোচনা অনুসরণ করুন ও নিজে সুন্দর জিবন যাপন করুন। আর যদি উপরোক্ত আলোচনা অনুসরণ করার পরেও আপনার মাথা থেকে নেগেটিভ চিন্তা চেতনা দূর না হয় তাহলে আপনাকে মেডিটেশন পেইড কোর্চ গ্রহণ করতে হবে। মেডিটেশন পেইড কোর্চ এর জন্য আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে যোগাযোগ করুন। ধন্যবাদ।।।

+8801767296990

মেডিটেশন করার জন্য উপরোক্ত বইটি আপনাকে শতভাগ সহযোগীতা করবে, তাই এই বইটি সংগ্রহ করুন। এই বইটির মূল্য- ১০০০০(দশ হাজার) টাকা।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ} ***লজ্জাতুন নেছা বইটি ১-৭ খন্ড ফ্রিতে পেতে চাইলে এখুনি উপরের এ্যড টিতে ক্লিক করুন***