আপনি কি জিনিয়াস? বুঝে নিন এই ৯টি  লক্ষণ দেখে

আপনি কি জিনিয়াস? বুঝে নিন এই ৯টি  লক্ষণ দেখে। Are You Genius?

হ্যালো বন্ধুরা লজ্জাতুন নেছা ওয়েব সাইটের পক্ষ্য থেকে আপনাকে স্বাগতম।। আপনি হয়তো জানেনি না যে, আপনি এক জন জিনিয়াস, আপনি হয়তো ভাবছেন যে, জিনিয়াস তো তারাই যারা প্রত্যেক Subject এ ১০০ মার্কের ভিতরে ৯০ মার্ক পায়। কিন্তু জিনিয়াসের লক্ষণ এটা নয়, জিনিয়াসের চিহ্ন অন্য কিছু। বিজ্ঞানীরা অনেক রিসার্চ করে জানতে পেরেছে। একজন জিনিয়াস মানুষের লক্ষণ গুলো কি কি হতে পারে!!! মানে আপনার ব্যবহার আপনার অভ্যাস আপনার সখ আপনার শরীর কিছু বিষয়ের উপর নির্ভর করেই এই রিসার্চ করেছে বিজ্ঞানীরা। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক, জিনিয়াসদের কত গুলো বিষয় আপনার সাথে মিল রয়েছে।

১ম- Staying Up Late- মানে বেশি রাত পর্যন্ত জেগে থাকা। যারা জিনিয়াস তারা কিছু না কিছু শিখতে চায়। জানার আগ্রহ তাদের মনের ভিতরে সারাক্ষণ বাসা বাঁধে। আপনি যদি এই গ্রুপে পড়েন তাহলে বুঝবেন যে, আপনি একজন জিনিয়াস। কারন পৃথিবীতে যত বড় বড় খ্যাতিমান বিজ্ঞানীরা রয়েছে এবং ছিলেন তাদের জিবনী দেখলে জানা যায় যে, তারা প্রতিরাতে প্রায় ১-৮ ঘন্টা ঘুমাতো তাই তারা অনেক সাফল্য অর্জন করেছেন।

 

২য়- Lazyness- আলস্য- আপনি মানুন আর না মানুন জিনিয়াসরা একটু আলস্য হয়। কারন তারা যখন কাজ করে, তখন তারা তাদের মাইন্ড কে পুরো কাজে লাগিয়ে দেয়। মনের ব্যবহারে তারা কোন কার্পূন্যতা করে না। আপনিও কি এরকম আলস্য নাকি!!

৩য়- Addiction- নেশা-তবে আমি বিড়ি সিগারেট বা গাজার কথা বলছি না। আমি বলছি কোন কিছু্র উপর নেশা। যেমন গেম খেলা মোবাইল ফুটবল ক্রিকেট ইত্যাদি ইত্যাদি নেশা।

৪র্থ- Less Social- হ্যা ঠিক ধরেছেন যদিও এটা একটা নেগেটিভ একটি বিষয়, তবুও প্রচুর বিষয়ের উপর রিসার্চ করে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে, যারা জিনিয়াস তারা সবার সাথে মিশতে পছন্দ করেন না। জিনিয়াস দের চিন্তা ভাবনা সবার সাথে মিল খায় না। তারা সবার থেকে আলাদা হয়, ভিন্ন কিছু করতে চায়।

৫ম- Thinking Before Sleeping-  যদি আপনি ঘুমানোর আগে ভাবেন তাহলে আপনাকে স্বাগতম। কারন জিনিয়াসরা প্রতিনিয়তই ভাবে যে, তার বর্তমান কি অবস্থা ও অতীতের কি অবস্থা এটা তারা উপলব্ধি করতে জানে। যেমন আজ কি হলো কাল কি হবে। আজকে কি করলাম কালকে কি করবো। কাজ গুলো করাটা কি আমার ঠিক হচ্ছে কিনা। এরকম চিন্তা ভাবনা একা একা গভীরে ভাববে ও নিজে নিজের সাথে কথা বলবে।

৬ষ্ঠ- Curiosity- জানার ইচ্ছা- যারা জিনিয়াস তারা অবশ্যই কোন না কিছু জানতে যায়, সব সময় তারা জ্ঞানের সন্ধানে অঘাত সময় ব্যয় করে। যেমন মনে করেন আজকের এই আলোচনাটি আপনি এখন পর্যন্ত মন দিয়ে পড়তেছেন ও তার প্রয়োগ করার চেষ্টা করবেন তাই এখন থেকে আপনিও জিনিয়াস।

৭ম- Talking To Yourself- নিজের সাথে মিটিং করা- জিনিয়াসরা নিজে নিজের সাথেই কথা বলে, নিজের সাথেই সকল কর্মকান্ড গুলোকে শেয়ার করে। নিজের সাথে কথা বলে তারা নিজের প্রবল্মে সমাধান করে।

৮ম- Blue Eyes- আপনি নিজে হয়তো জানেন পৃথিবীর ৭শত কোটি মানুষের ভিতরে মাত্র ৮% মানুষের চোখেই Blue Eyes। Blue Eyes এর ব্যক্তিত্ব ও অধিকারীর মানুষ, অন্যান্ন  জিবের তুলনায় অনেক পারর্শী হয়।

৯ম- Nail Sign- আপনার হাতের বৃদ্ধা আঙ্গুলের উপরে যদি সাদা সাদা অংশ থেকে থাকে তাহলে ধরে নিবেন আপনি একজন জিনিয়াস। বিভিন্ন বিজ্ঞানীদের মতে এই কথাটি অনেক বাস্তবতার স্বীকার।

বিঃদ্রঃ- নিজেকে একজন জিনিয়াস বানাতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে মেডিটেশন করতে হবে।। আমাদের এখানে মেডিটেশনের কোর্চটি অনেক কম মূল্যে দেয়া হচ্ছে। ধন্যবাদ।

+8801767296990

মেডিটেশন করার জন্য উপরোক্ত বইটি আপনাকে শতভাগ সহযোগীতা করবে, তাই এই বইটি সংগ্রহ করুন। এই বইটির মূল্য- ১০০০০(দশ হাজার) টাকা।