ইচ্ছা পূরণ মন্ত্র

মনের ইচ্ছা পূরণ করুনঃ

বিঃদ্রঃ- হিন্দু ভিজিটরগনদের উদ্দেশ্যে আজকের আলোচনা।

মাঝে মাঝেই আমরা যখন হতাস হয়ে পড়ি, তখন ঈশ্বরের উদ্দেশ্যে আমরা বলি হে ঈশ্বর আমার দিকে এই তুমি একটু মুখ তুলে চাও। পূরণ করো আমার সব মনের ইচ্ছা। একটু বর দাও যেন আমার সময় থেকে বেরিয়ে আসতে পারি। কিন্তু হায়রে ভাগ্য উত্তর মেলে না। প্রাপ্তি ও হয় না সামান্যটুকু, মন ভেঙ্গে যায় একদিন শরীর ভেঙ্গে যায়। একদিন সব মনের ইচ্ছাগুলি মনেই মরে যায়। এবার হয়তো আপনার সেই দিনগুলো শেষ হয়ে এসছে। আপনি যদি নিয়মিত মহাদেবের এই মন্ত্রটি পাঠ করতে পারেন। দেখবেন আপনার মনের ইচ্ছা অনেকটাই পূরণ হবে। হ্যা, মহাদেবকে আপনি যদি সন্তুষ্ট করতে পারেন? তাহলে আপনি পাবেন আপনার মনের সমস্ত ইচ্ছা পূরণ করার শক্তি। ভগবান শিব হলেন মহাযোগি, যার শরীরে কোন দোষের দাগ নেই, তিনি পবিত্র তিনি কারো চোখের জল দেখতে পারেন না। তাইতো কারোর মনের ইচ্ছা পূরণ করতে পিছপা হন না। সেই কারণে ভগবান শিবের এই মন্ত্র একবার উচ্চারণ করে দেখুন, আপনার জিবনের ছবিটাই হয়তো বদলে যেতে পারে। ফিরে পেতে পারেন মনের শান্তি, শুধু তাই নয় আমাদের মনের সমস্ত দোষ ও পাপ ধুয়ে যাবে এই একটি মন্ত্রে। তাই আর অপেক্ষা না করে আজ থেকেই শুরু করুন এই মন্ত্র জপ। দেখুন না জিবনটা কিছুটা হলেও পাল্টায় কিনা। এই মন্ত্রটিকে শাস্ত্রে রুদ্র মন্ত্র বলা হয়ে থাকে।

মন্ত্রটি হলো এইরুপঃ-“ওঁম নমোঃ ভগবতে রুদ্রায়”

এই মন্ত্রটি পাঠ করলে দেখবেন মনে একটা শান্তি ফিরে আসছে মনে সুখ ফিরে আসছে। তবে মন্ত্রটি পাঠ করার পূর্বে আপনাকে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। গোসল বা স্নান করার পর পরিষ্কার জামা কাপড় পরিধান করে কমপক্ষে হলেও এই মন্ত্রটি ১০৮ বার পাঠ করতে হবে। শাস্ত্রে লেখা আছে এমনটা প্রতিদিন করলে মনের সব ইচ্ছা পূরণ হয়। সেই সঙ্গে জিবনে শান্তি ফিরে আসে। আপনাকে মন্ত্রটি জপ করতে হবে শিবের মূর্তি বা শিবের ছবির সামনে। দেবানী দ্বীবের ফুল দিয়ে তাকে সাজিয়ে দিবেন তাকে অর্পন করবেন। সেটা হতে পারে কোন সাদা ফুল। তারপর মন্ত্রটি জপ করা শুরু করবেন। সময়ের সাথে সাথে বাড়াবেন মন্ত্র জপের সংখ্যা। শাস্ত্রবীদরা বা সাধুগনরা বলেন রুদ্রাক্ষর মালা হাতে নিয়ে জপ করলে এই তাড়াতাড়ি ফল পাওয়া যায়। এছাড়াও এই মন্ত্রটি জপ করার কিছু উপকারীতা রয়েছে।

যেমনঃ- এই মন্ত্রটি পাঠ করলে আমাদের মাঝে জমা হওয়া পাপ বা দোষ আস্তে আস্তে ক্ষয় বা মুক্ত হয়ে যায়। মস্তিষ্কের ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। ব্রেনের পাওয়ার বৃদ্ধি পায়। যারা এই মন্ত্রটি নিয়মিত জপ করে তারা কখন ক্ষতির সমূখীন হন না। জিবন খুশিতে ভরে উঠে সফলতা হয়ে যায় আপনার নিত্য সঙ্গি। শরীরের কর্ম ক্ষমতা ভিষন ভিষন ভাবে বৃদ্ধি পায়। সেই সাথে শরীরের এ্যনার্জী ঘাটতি ও দুর হয়ে যায়। মনের সকল ইচ্ছা পূরণ হয়। মনের ভিতর থেকে সকল ভয় দুর হয়ে যায়। দুঃখ ধারের কাছেও ঘেসতে পারে না। তাই বলতেছি বন্ধুরা আজ থেকেই শুরু করুন এই মহামন্ত্র জপ। বিশেষ করে হিন্দু ভিজিটরগনদের উদ্দেশ্যে বলতেছি। আপনারা বেশি বেশি করে এই মন্ত্রটি জপ করুন।