এই নিয়মে প্রেমিক বশীকরণ করার সহজ টোটকা। Lojjatun Nesa

এই নিয়মে প্রেমিক বশীকরণ করার সহজ টোটকাঃ

লজ্জাতুন্নেছা পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। প্রতিবারের মতো এবারও আমরা আরও একটি নতুন বিষয় নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি আমাদের আজকের নতুন বিষয় প্রেমিক বশীকরণ করার টোটকা।   আজ আমরা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি 200 বছরের পুরাতন কোকা পন্ডিতের লজ্জাতুন্নেছা থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।  কোন প্রেমিকা যদি তার প্রেমিককে পছন্দ করে থাকে কিন্তু তার মনের কথা বলতে না পারে অথবা কোন প্রেমিক প্রেমিকা কে ছেড়ে চলে যায় বা প্রেমিক তাকে ভালো না বেসে অন্য কাউকে ভালোবাসে তাহলে সে ক্ষেত্রে প্রেমিকা চাইলে এই বশীকরণ টোটকা প্রয়োগ করে তাকে বশীভূত করতে পারবে।  তবে অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে এই ধরনের কখনই কোন প্রকার খারাপ কাজের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যাবে না।  অবশ্যই ভালো উদ্দেশ্যে এটি ব্যবহার করতে হবে।  প্রেমিক বশীকরণ করার টোটকা যদি প্রয়োগ করতে চান তাহলে আমাদের দেওয়া সম্পূর্ণ নিয়ম  কানুন আপনাকে সঠিক ভাবে পালন করতে হবে।

তাহলে চলুন আমরা প্রেমিক বশীকরণ টোটকা সম্পর্কে যাবতীয় বিষয় জেনে নেই-

 প্রয়োজনীয় উপকরনঃ:  আপনি যদি এই টোটকা প্রয়োগ করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে কিছু প্রয়োজনীয় উপকরণ সংগ্রহ করতে হবে চলুন সে সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-  শিলাজিৎ,গোরোচনা,  কেশর,  ঘি।

 নিয়ম কানুন ও প্রয়োগ বিধি: কোন প্রেমিকা যদি তার প্রেমিককে বশীকরন করার জন্য এই টোটকা প্রয়োগ করতে চায় তাহলে অবশ্যই তাকে আগে প্রয়োজনীয় উপকরন সমুহ সংগ্রহ করে নিতে হবে। সংগ্রহ করা হয়ে গেলে তারপর নিজে পাক পবিত্রতা অর্জন করে সমস্ত প্রকার উপকরণ গুলি একসাথে মিশিয়ে চোখে কাজল লাগিয়ে প্রেমিকের কাছে যাওয়া মাত্রই সে যখন তার প্রেমিকাকে দেখবে তখন সে তার বশীভূত হয়ে যাবে।

আজ আমরা এখানে যে টোটকা উপস্থাপন করলাম এই টোটকা সম্পর্কে যদি আপনার কোন মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন সেই সাথে আপনি যদি আমাদের কাছ থেকে কোন ধরনের পরামর্শ নিতে চান বা আমাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের এই ওয়েবসাইটের আলাপন অপশন ব্যবহার করতে পারেন।

 এছাড়াও আপনি যদি যন্ত্র মন্ত্র তন্ত্র তাবিজ তদবির বশীকরণ ইত্যাদি বিষয়ে প্রয়োগ করার জন্য যে সমস্ত উপকরণ সমূহের প্রয়োজন হয় সেগুলি যদি সংগ্রহ করতে না পারেন তাহলে আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি সংগ্রহ করতে পারবেন।

বি.দ্র. : সমস্ত প্রকার যন্ত্র মন্ত্র তন্ত্র তাবিজ তদবির বশীকরণ টোটকা এ সমস্ত প্রয়োগ ক্ষেত্রে কখনোই আপনি খারাপ কোন মনোবাসনা নিবেন না। লজ্জাতুন্নেছা যে সকল যন্ত্র মন্ত্র তন্ত্র বিভিন্ন কার্যসিদ্ধির জন্য আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছে তা যদি আপনি সঠিকভাবে তান্ত্রিক গুরু অথবা সাধকের নির্দেশ ব্যতীত সঠিক পদ্ধতিতে প্রয়োগ না করে থাকেন তাহলে তার ফলে কোন ধরনের ব্যাঘাত ঘটলে লজ্জাতুন্নেছা কোনভাবেই দায়ী থাকবেনা।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}