ওল কচুর ঔষুধি গুণাগুণ

ওল কচুর ঔষুধি গুণাগুণঃ

ওল দু’রকমের হয়। বনের মধ্যে যে ওল আপনা-আপনি জন্মায় তাকে বন্য ওল বলে, আর যে ওল চাষ করে বাজারে বিক্রি হয় তাকে গ্রাম্য ওয় বলে। বন্য ওল বড় এবং কুট্‌কুটে হলেও ঔষদ হিসেবে এর গুণ অসামন্য।

ওল অগ্নিদীপক, রুক্ষ, কষায়, কটুরস, কন্ডূকারক, বিষ্টম্ভী, বিশদগুণযুক্ত, রুচিকর এবং লঘু। এতে কফ, অর্শ, প্লীহা এবং গুল্মরোগ আরোগ্য হয়। বিশেষত অর্শরোগে ওল একটি সুপথ্য। সবরকম কন্দশাকের মধ্যে ওল সর্বশ্রেষ্ঠ।

এখন বর্তমানে খুব কমই এর চাষ হয়। তাই হয়তো ছোট ছোট বাচ্চারা এখন মনে হয় আর ওল কি জিনিসি চিনবেই না। যদি আপনাদের আশে পাশে এই ওল থাকে তাহলে আপনারা নিম্নলিখিত রোগ গুলি থেকে পরিত্রান পাবেন।

কিন্তু দ্রুত, কুষ্ঠ ও রক্তপিত্ত রোগে ওল অনিষ্টকর। সন্ধানযোগপ্রাপ্ত ওল অত্যাধিক গুণদায়ক।

ওল (সাদা) রুচ্য, কটু, উষ্ণ, ক্রিমিনাশক, গুল্মশূলাদি দোষনাশক ও অরুচি দূর করে।

ওল, শ্বাস, কাশ ও সর্দ্দি (কফ) দূর করে।

ওল দীপক, রুচ্য, লঘু, বিশদ এবং কফনাশক।

রক্তাভ শ্বেত বন্য ওলকে মাটির প্রলেপ দিয়ে ঘুটের আগুনে পাক করে সৈন্ধবলবণ, তিল ও সরিষার তেলের সাথে মিশিয়ে খেলে অর্শরোগ আরোগ্য হয়।