জ্বীনকে বশ করার সহজ নিয়ম

জ্বীন সাধনার ৫টি সহজ নিয়মঃ

হ্যালো ভিউয়ারস্ www.kokapandit.com এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। আজ আমরা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করবো জিন সাধনার কয়েকটি সহজ নিয়ম।  আপনারা যারা জিন সাধনা করতে চান বা জিন আয়ত্ত করতে চান তাহলে অবশ্যই আজকে আমাদের এই প্রবন্ধে যে সমস্ত নিয়ম কানুন গুলো দেয়া থাকবে সেগুলো যদি মেনে চলতে পারেন তাহলে আপনি খুব সহজেই জিন আয়ত্ব করতে পারবেন। তবে একটি বিষয়ে আপনারা লক্ষ্য রাখবেন সেটি হচ্ছে জিন সাধনা করতে হলে আপনাকে অনেক সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে তা না হলে বিভিন্ন ভাবে আপনার বিপদ হতে পারে।  এজন্য আপনি যখন এই সাধনা ঠিক করবেন তখন অবশ্যই আপনি সাবধানতা অবলম্বন করে সতর্কতার সাথে সাধনা করবেন।  তবে আমরা আপনাদেরকে বলবো এই সাধনা করার জন্য আপনারা যে কোন আলেম এর কাছ থেকে খুব ভালো হবে আরও জেনে নেওয়া।  আমরা আজকে এখানে যে নিয়মগুলি বলব সে নিয়মগুলো মেনে ও আপনারা যে আয়ত্ত করতে পারবেন।  তাহলে চলুন জিন সাধনা কয়েকটি সহজ নিয়ম আমরা দেখে নিই-

 প্রথম পদ্ধতি: আপনি যদি জ্বীন আয়ত্ত করতে চান তাহলে সব থেকে সহজ পদ্ধতি হচ্ছে সূরা জ্বীন আপনাকে সাত শত বার করতে হবে। আপনি সুরা জিন পড়ার জন্য দিনে অথবা রাতে যে কোন সময় পড়তে পারেন।

দ্বিতীয় পদ্ধতি: আপনি যদি জিন সাধনা করতে চান তাহলে সহজে দ্বিতীয় পদ্ধতি রয়েছে তা হচ্ছে সূরা জ্বীন উল্টো করে লিখতে হবে প্রথমে তারপর 555 বার পড়তে হবে। এটা আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানিয়ে রাখি যে এটা সম্পূর্ণ কুফুরী কালাম।

তৃতীয় পদ্ধতি: সূরা জ্বীন ৩৩১ হাজার বার করে পড়ে ১১ বার দরুদ শরীফ পাঠ করতে হবে।

চতুর্থ পদ্ধতি:  আপনি যদি খুব সহজে জিনার তো করতে চান তাহলে সূরা কাহাফের ৭৫ নম্বর আয়াত থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে একটানা ৪০ দিন। এই চল্লিশ দিনের মধ্যে আপনি একটি নির্দিষ্ট সময় বেছে নেবেন ওই সময়টাতে প্রতিদিন আপনি এই নিয়মে পড়তে থাকবেন তবে এই ৪০ দিনের মধ্যে আপনি কোন একদিন বিরত থাকবেন না একটানা ৪০ দিন ওই নির্দিষ্ট সময়ে পড়বেন।

পঞ্চম পদ্ধতি: কোরআন শরীফ বাথরুমের মধ্যে গিয়ে সূরা ওয়াকিয়া উচ্চস্বরে ১৮ বার করতে হবে এবং তিনবার হাততালি দিয়ে এ আশায় তানোর রহিম সাত বার করে বাথরুমের মধ্য থেকে বের হয়ে আপনার রুমের মধ্যে গিয়ে কিছু সময় পর্যন্ত ধ্যান করুন।  আপনার সাধনা যদি সঠিকভাবে হয়ে থাকে তাহলে জিন আপনার নাম ধরে ডাক দিবে।

বিঃদ্রঃ- এখানে যে সমস্ত নিয়ম গুলির কথা বলা হয়েছে তা  সম্পূর্ণ  শীর্কী এবং কুফরি আমল। এজন্য আপনি যদি এই সহজ পদ্ধতি গুলো অবলম্বন করতে চান তাহলে অবশ্যই ভাবনা-চিন্তা করে তারপর আপনি জিন সাধনা করুন। (যদি কেউ জ্বীন সাধনা আমাদের মাধ্যমে শিখতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আমরা আপনাকে পরিপূর্ণ ভাবে জ্বীন সাধনা শিখিয়ে দিবো।) ধন্যবাদ।।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}