নয়নতারা ফুল গাছের উপকারীতা

নয়নতারা ফুল গাছের উপকারীতাঃ

নয়ন তারা আসলে একটি বর্ষজীবী সোজা কান্ডযুক্ত গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ। অবশ্য কিছু কিছু ক্ষেত্রে এটি বহু বছর ধরে নান প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও বেঁচে থাকে। নয়নতারা গাছ লম্বায় খুব একটা বড় হয় না। সাধারণভাবে দেয় থেকে দু’ফুটের মত লম্বা হয়।

বিভিন্ন অসুখে ব্যবহারঃ

বহুমূত্র রোগেঃ রোজ সকালে নয়নতারার সাদা ফুল গাছের দু’টি পাতা খালিপেটে চিবিয়ে খেলে রোগ মোটেই বাড়তে পারে না। যাঁদের দাঁত নেই তাঁরা পাতাকে সামান্য পানি দিয়ে বেটে এক চামচ পরিমান রস-খাবেন। এ রোগটি সম্পর্কে মনে রাখা দরকার, বহুমুত্র রোগে একবার আক্রান্ত হলে, সারা জীবনে নান রকম চিকিৎসাও রোগী সম্পূর্ণ নিরাময় হয় না। কেবলমাত্র খাদ্রদ্রব্য গ্রহণ করার ক্ষেত্রে পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ এবং নিয়মিত ঔষধ খেলে রোগ আংশিক নিরাময় হতে পারে। নয়নতারা পাতাও নিয়মিত খেলে রোগ নিয়ন্ত্রণে থাকে।

রক্তের চাপ বাড়লেঃ নয়নতারা গাছের টাট্‌কা মূলের রস মাত্র পাঁচ মি.লি. সকালে খালিপেটে একবার করে খেতে হবে। তিন থেকে চারদিন খেলেই কিছুটা উপকার নিশ্চয়ই পাওয়া যাবে। তবে চার-পাঁচ দিন বাদে চিকিৎসকের কাছে রক্তের চাপ পরীক্ষা করে অবশ্যই দেখা দরকার।

বিষাক্ত ঘা ও ক্ষতঃ শরীরের কোন অঙ্গ কেটে গেলে অথবা ঘা যদি বিষাক্ত হয়ে যায়। তবে নয়নতারা গাছের রস উভয়ে রোগে প্রয়োগ করলে খুব ভাল ফল পাওয়া যায়। রোজ একবার করে কচি ডাল ও পাতাকে বেটে তার রস দিয়ে ঘা ধুয়ে, বেঁধে রাখতে হবে। সাতদিন ব্যবহার করলে বিষদোষ নষ্ট হয়ে যাবে এবং ঘা শুকিয়ে যাবে। অস্ত্রের আঘাতে কেটে গেল একইভাবে কাটা জায়গায় রস প্রয়োগ করে বেঁধে রাখতে হবে। ৩-৪ দিনের মধ্যেই কাটা জায়গা জুড়ে যাবে।

ব্লাড ক্যান্সারেঃ এ রোগটি আজও মানুষের কাছে আতঙ্কের কারণ হয়ে আছে। এ রোগে আক্রান্ত রক্তে লোহিত কণিকার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে যায়। নয়নতারা গাছেল কচি ডালে রস সকালে ও বিকালে ১০ মিলিমিটার পরিমাণ খেলে রোগের কিছুটা উপশম হয়। বর্তমানে পৃথিবীর বহু দেশে এ ব্যাপারে নয়নতারা গাছ সম্পর্কে পরীক্ষা চলাচ্ছে। কারণ, বিজ্ঞানীরা নয়নতারা গাছের পাতা ও ডালের রস থেকে প্রায় ৭০ টি ঔষধ ইতিমধ্যেই আবিষ্কার করেছেন।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}