পতি বশীকরণ

পতি বশীকরণ তিলকঃ

বিবরণঃ-কে না চায় যে তার স্বামী তাকে ভালোবাসুক তার কথামতো তাকে আদর যত্ন করুক। সারাক্ষণ পাশে থেকে তাকে সময় দেউক। ঠিক তাদের জন্যই এই আলোচনা। আপনার অবাধ্য স্বামীকে আপনি যদি নিজের বশে আনতে চান? তাহলে নিচের দেওয়া প্রক্রিয়াটি ব্যবহার করতে পারবেন।

১। শ্বেত অপরাজিতার মূল গোরোচনাসহ পেষন করে কপালে তিলক ধারণ করে পতির নিকট গমন করলে সে বশীভূত হবে।

২। মনঃশীলা, কুঙ্কুম, শ্বেত-সরিষা, বচ, কুড়, দেবদারু, রক্তচন্দন ও নিজের দেহের রক্ত একত্রে পেষণ করে, সকালে স্নান করে শুদ্ধবস্ত্রে পূর্বমুখে বসে লক্ষ্মীদেবীর পূজা করে, কপালে তিলক ধারণ করলে এবং বা হাতে লেপন করে স্বামীর প্রতি দৃষ্টিপাত করলে, সেই স্বামী বশীভূত হবে।

বিঃদ্রঃ- এই প্রক্রিয়া করার পূর্বে নিম্নমন্ত্র ১০০০০ (দশ হাজার) বার জপ করে সিদ্ধ হতে হবে। উপরোক্ত দুটি প্রক্রিয়াতেই এটি প্রযোজ্য।

মন্ত্র “ওঁ রক্তচামুন্ডে পতিং মে বশমানয় নমঃ, ওঁ হ্রীং হ্রীং হ্রীং ফট্।”

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}