পরকীয়া থেকে স্বামীকে দূরে রাখার মন্ত্র

স্বামীকে চিরদিনের জন্য বশীভূত করার মন্ত্রঃ

বিবরণঃ- সমাজে অনেক মানুষ পাওয়া যাবে যাহারা ঘরে সুন্দরী স্ত্রী থাকতেও অন্য নারীর প্রতি আসক্ত হয়ে অনেক টাকা পয়সা উড়াচ্ছে। কিন্তু ঘরে সুন্দরী স্ত্রী থাকা সত্বেও সেই স্ত্রী বা নারীর কিছুই করার থাকে না। অসহায়া সেই স্ত্রী কোন উপায় না পেয়ে অনেক সময় বাবা বাড়িতে গিয়ে কয়েক দিন থাকে আবার কিছু দিন পর ফিরে আসে। এভাবেই চলে যাচ্ছে তার কষ্টের ‍দিন গুলো…কিন্তু কিছুই কি করার নাই সেই স্ত্রীর। অবশ্যই আছে, কোকা পন্ডিতের পক্ষ্য থেকে আমরা এই সমস্যা দূর করতে নিম্ন লিখিত গুরু মন্ত্রটি উপস্থাপন করেছি। আপনারা এই মন্ত্রটির সঠিক প্রয়োগ বিধি অনুসরণ করে কাজটি সম্পন্ন করবেন। তাহলে দেখবেন আপনার পতি/স্বামী পরনারী তো দূরের কথা আপনাকে ছাড়া অন্য কোন স্ত্রীর প্রতি সে চোখ তুলে ও তাকাবে না।।

পরকীয়া থেকে স্বামীকে দূরে রাখার মন্ত্রঃ

“খন্দকিনী খন্দকিনী শুন মোর বানী।
ঘোর ঘটা করি চলে তরুণ তরুণা।।

ইত্যাদি বলিয়া ষয়ে খন্দকিনী ষায়।

কান্দিতে কান্দিতে বামা পড়ে তার পায়।

খন্দকিনীর আজ্ঞা ইহা অন্য কার কথা।

আপন বলিতে যার প্রাণে লাগে ব্যথা।

আংরু উনিশ বিশ আদি যত বস।

পঞ্চাশে ধরেছে তারে নাহি তার রস।

বৃথা না যাইবে ওরে বৃথা না যাইবে।

খন্দকিনী মন্ত্রে সে ত্বরিতে আসিবে।

খন্দকিনী পঞ্চাশে রামা বস আদি।

এই মন্ত্রে রহে ঘরে না যায় অবধি।

মদন শুনহ তুমি খন্দকিনি হত।

আসিয়া অমুকি হয় এই স্থানে রত।।

অরিন্দম অষ্প আদি বন্দ বন্দি আদি।

মকরন্দে আসে ভ্রমর আসে নিরবধি।

আসস্তি যাওস্তি বেটা বেটী হও।

রহ রহ বলি তুমি হেথা কথা কও।

অতন্ত অনন্তি তুমি শিঘ্র এস হেথা।

অমুকীর উনাই কর প্রাণে দিয়ে ব্যথা।

এই বলিয়া অনন্তি চলিয়া যে যায়।

অমুকীরে অশান্তি তিনি পূর্ণ করয়।।

কার আজ্ঞে?

খন্দকিনীর ঝির আজ্ঞে।

কার আজ্ঞে?

বিরিঞ্চি বাবার আজ্ঞে।

মদন দেবের বর ইহা অন্য কিছু নয়।

অমুকীর সহ অমুক মিলিত যে হয়।।”

প্রথমে কতকগুলি মালতী পুষ্প সরিষা তৈলের সহিত বেষ্ট করিয়া পাক করতঃ শীতল হইলে উক্ত তৈল নিজ যোনিদেশে লেপন করিবে। তারপর স্বামীর সাথে যৌন মিলন করিবে।  ইহার দ্বারা স্বামী এইরুপ বশিভুত হইবে যে, সে জীবনে কখনও অন্য কোন নারীর নিকট গমন বা তাহার মুখ দর্শন পর্যন্ত করিবে না।

বিঃদ্রঃ- উপরোক্ত মন্ত্রটির যেখানে অমুকী ও অমুক আছে সেখানে আপনার নাম ও স্বামীর নাম উল্লেখ করিতে হইবে।। উপরোক্ত প্রয়োগ টি করার পূর্বে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন এবং চন্ডিবরণ দিয়ে অনুমতি গ্রহণ করুন।। ধন্যবাদ।।।