পান বশীকরণ মন্ত্র দিয়ে যা খুশি তাই করুন। Lojjatun Nesa

পান বশীকরণ মন্ত্র দিয়ে যা খুশি তাই করুনঃ

লজ্জাতুন্নেছা পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। প্রতিবারের মতো এবারও আমরা আপনাদের সামনে আরও একটি নতুন বিষয় নিয়ে হাজির হয়েছে আমাদের আজকের নতুন বিষয় পান বশীকরণ মন্ত্র। আজ আমরা আপনাদের সামনে যে বশীকরণ মন্ত্র টি তুলে ধরছি এই মন্ত্রটি যে কোন স্ত্রী বা পুরুষের ওপর প্রয়োগ করা যাবে এবং যে কোন স্ত্রী বা পুরুষ প্রয়োগ করতে পারবে। আপনি যে কোন ভালো কাজের উদ্দেশ্যে এটি ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি এটি প্রয়োগ করতে চান তাহলে আজ আমরা এখানে যে সমস্ত নিয়ম কানুন এর কথা বলব সেগুলি যদি আপনি সঠিকভাবে করতে পারেন তাহলে সম্পূর্ণরূপে ফলাফল ভোগ করতে পারবেন।

তাহলে চলুন প্রথমে পান বশীকরণ মন্ত্র টি দেখে নেয়া যাক-

“কামরুদেশ কামাক্ষা দেবী।

তহা বসে ইস্মায়ল।।

যোগী ইস্মাইল যোগী নে।।

দীন্থা বীড়া, পহলা বীড়া।।

আতো জাতী, দূজা বীড়া।।

দিখাবে ছাতী, তীজা বীড়া।।

অঙ্গ লিপটাই ফুরে মন্ত্র।।

ঈশ্বরো বাচা।।

দুহাই গুরু গোরখনাথ কী।।”

প্রয়োজনীয় সামগ্রী: আপনি যদি এই বশীকরণ মন্ত্র প্রয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে শুধুমাত্র একটি পানের খিলি সংগ্রহ করতে হবে তাছাড়া আপনাকে আর কোন কিছু সংগ্রহ করতে হবে না।

নিয়ম কানুন: প্রথমত আপনারা মন্ত্রটি খুব ভালোভাবে মুখস্থ করে নিন তা না হলে মন্ত্র উচ্চারণে যে কোনো ধরনের ভুল হতে পারে যার ফলে আপনি এটি প্রয়োগ করে কোন প্রকার ফলাফল পাবেন না। মন্ত্র মুখস্ত করা হয়ে গেলে আপনাকে এই মন্ত্র সিদ্ধ করে নিতে হবে। এই মন্ত্রটি সিদ্ধ করার জন্য আপনাকে 21 দিন ধরে প্রতিদিন 10 মালা জপ করে সিদ্ধ করে নিতে হবে। তাহলে উক্ত মন্ত্রটি সিদ্ধ হবে। মন্ত্র সিদ্ধ করার সময় কোন প্রকার কারো সাথে কথা বলবেন না এবং কেউ যেন আপনাকে না দেখে।

প্রয়োগ পদ্ধতি: উক্ত মন্ত্র সিদ্ধ করা হয়ে গেলে আপনি যখন একটি প্রয়োগ করতে যাবেন তখন যেকোন রবিবার বা মঙ্গলবার দিন আপনি একটি পানের খিলি নিয়ে উক্ত মন্ত্র সাতবার অভিমন্ত্রিত করে আপনার কাঙ্খিত ব্যক্তিকে খাওয়ানো মাত্রই সে আপনার বশীভূত হবে এবং আপনার কথামত চলবে।

আমাদের এই আলোচনা সম্পর্কে যদি আপনার কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই আপনি আমাদেরকে ইমেইল করতে পারেন বা আপনি যদি আমাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে চান বা আমাদের সাথে কোন পরামর্শ করতে চান তাহলে আপনি আমাদের এই ওয়েবসাইটে আলাপন অপশন ব্যবহার করতে পারেন।

বি.দ্র: কখনোই কাউকে ক্ষতি করার উদ্দেশ্য নিয়েই কাজটি করতে যাবেন না।