প্রেমিক ও প্রেমিকার মিলনের পরীক্ষিত তদবীর

প্রেমিক ও প্রেমিকার মিলনের পরীক্ষিত তদবীরঃ

বিভিন্ন সমস্যার কারণে অনেক দিনের গভীর প্রেমের সম্পর্ক ও বিছিন্ন হয়ে যায়। এই অসমাপ্ত ভালবাসা বা প্রেম কে নিয়ে অনেক ধরণের সমস্যায় পড়ে যায় অনেক প্রেমিক ও প্রেমিকারা। তাই এই সকল অসমাপ্ত প্রেম ভালবাসাকে ফিরে আনতে বা সম্পর্ক অটুট রাখতে নিম্নের তদবীরটি প্রয়োগ করতে পারেন।। এই তদবীরটি অনেক ফলদায়ক ও কার্য্যকরী।।।

আশেক ও মাশুকের মধ্যে মহব্বত সৃষ্টি এবং মিলনের জন্য এই তদবীরটি পরিক্ষিত এবং আশ্চর্য্য রকমের ফলদায়ক। ইহা চার প্রকারে বা নিয়মে করা যায়।

প্রথম নিয়মঃ- এই নকশা কাগজে লিখিয়া মাদুলিতে ভরিয়া ডালিম গাছে ঝুলাইয়া বাঁধিয়া দিবে। বাতাসে যখন এই নকশা নড়াচড়া করিবে তখন মাশুক মিলিবার জন্য অস্থির হইয়া পড়িবে।

দ্বিতীয় নিয়মঃ- এই নকশাটি লিখিয়া মাদুলীতে ভরিয়া যেকোন ময়দানের মধ্যে দাফন করিয়া রাখিবে। ইনশাআল্লাহ্ অল্প দিনের মধ্যে মাশুককে পাইবে।

তৃতীয় নিয়মঃ- এই নকশা লিখিয়া গমের আটা দ্বারা ভিতরে নকশা দিয়া গুলি বানাইয়া একুশ দিন পর্যুন্ত সকাল বেলা নদীতে বা সমুদ্রে নিক্ষেপ করিবে। আল্লাহ তায়ালার রহমতে মাশুক মিলিবার জন্য পাগল হইয়া যাইবে এবং তাহাকে পাইবে।।

চতুর্থ নিয়মঃ- এই নকশা লিখিয়া সলিতা বানাইয়া একুশ দিন পর্যুন্ত জ্বালাইবে। সলিতার মুখ মাশুকের বাড়ীর দিকে রাখিবে। ইনশাআল্লাহ তায়ালা অল্প দিনের ভিতরে মাশুককে লাভ করিবে।

নকশাটি এইঃ-

বিঃদ্রঃ- নকশার নিচে প্রথম ফলান এর স্থানে আশেকের নাম ও দ্বিতীয় ফলান এর স্থানে মাশুকার নাম লিখতে হবে।।। এই তদবীরটি প্রয়োগের পূর্বে আপনাদেরকে অবশ্যই হাদিয়া প্রদান করতে হবে।। নতুবা ফল আশা করা অস্বাভাবিক।।। ধন্যবাদ।।।

{লজ্জাতুন নেছা, কোকা পন্ডিতের বৃহৎ ইন্দ্রজাল, তন্ত্র মন্ত্র এবং বশিকরনে কালা জাদু বই গুলি ফ্রিতে পেতে চাইলে নিচের লেখা বা ছবিতে ক্লিক করুন ও বই গুলি লুফে নিন ধন্যবাদ}