বাড়ীর পাশের যেকোন নারীকে রাতে বিছানায় আনার উপায়

বাড়ীর পাশের যেকোন নারীকে রাতে বিছানায় আনার উপায়ঃ

হ্যালো ভিউয়ারস্ লজ্জাতুন নেছা.কম এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। প্রতিবারের ন্যায় এবারও আমরা আরও একটি নতুন বিষয় নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি আমাদের আজকের নতুন বিষয় স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্র। আজ আমরা আপনাদের সামনে স্ত্রী বশীকরণ এর জন্য যে মন্ত্রটি আপনাদেরকে দেখাবো এই মন্ত্র টির মাধ্যমে আপনারা প্রয়োজনীয় সামগ্রী ব্যবহার করে আপনি আপনার স্ত্রীকে খুব সহজেই আপনার বাধ্য করতে পারবেন। এমন অনেক পরিবার আছে যেখানে স্ত্রী তার স্বামীর কথা শুনতে চান না বা স্ত্রী তার ইচ্ছা মতন চলাফেরা করে থাকেন বা স্ত্রী তার স্বামীকে পছন্দ করেন না বা স্ত্রী অন্য কোন পুরুষকে পছন্দ করে থাকেন এরকম কি যদি হয়ে থাকে তাহলে আপনি চাইলে আপনার স্ত্রীকে আপনি এই মন্ত্র প্রয়োগের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার বাধ্য করতে পারবেন। তাহলে চলুন প্রথমে আমরা মন্ত্রটি দেখে নেই-

“ওহম নমঃ ব্যাখ্যা দেবি অমুকি মে বশকারী স্বাহা।”

প্রয়োজনীয় সামগ্রী: এই মন্ত্রটি কে যদি আপনি প্রয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই এই সমস্ত প্রয়োজনীয় সামগ্রী গুলো সংগ্রহ করতে হবে। সেগুলি হচ্ছে- চিতার  ভস্ম,  ব্রহ্মকুণ্ডী ।

নিয়ম কানুন: প্রথমে আগে মন্ত্রটি দেখে খুব ভালোভাবে মুখস্থ করে নিবেন। আপনি যদি মন্ত্রটি মুখস্ত করে না নিয়ে থাকেন তাহলে মন্ত্র টি উচ্চারণে আপনার ফুল হওয়ার সমুহ সম্ভাবনা থাকতে পারে। মন্ত্র উচ্চারণে যদি ভুল হয়ে থাকে তাহলে এই মন্ত্র প্রয়োগে আপনি কোন ধরনের ফলাফল পাবেন না। এজন্য প্রথমে আগে মন্ত্রটি খুব ভালো হবে আপনি মুখস্ত করে নিন।

মন্ত্রটি মুখস্ত করে নেয়া হয়ে গেলে আপনি মন্ত্রটিকে সিদ্ধ করে নিন কারণ মন্ত্রটি স্বয়ং সিদ্ধ নয়। মন্ত্রটিকে সিদ্ধ করে নেওয়ার জন্য আপনি রবিবার দিন যে কোন একটি ভালো সময় বেছে নিয়ে আপনি নিজে পাক পবিত্রতা  হয়ে এবং যে স্থানে বসে আপনি মন্ত্র. সিদ্ধ করবেন সেই স্থান টি অবশ্যই যেন পবিত্রতা বজায় থাকে। তারপর আপনি উক্ত মন্ত্রটি ১০০০ বার জপ করবেন। তাহলে মন্ত্র টি সিদ্ধ হয়ে যাবে ।

প্রয়োগ পদ্ধতি: এই মন্ত্রটি কে খুব ভালোভাবে সিদ্ধ করে নেয়া হয়ে গেলে তারপর আপনি যখন এটি প্রয়োগ করবেন তখন রবিবার দিন ভালো একটি সময় নির্ধারণ করে নিজে পাক পবিত্রতা বজায় রেখে প্রয়োজনীয় সামগ্রী গুলি একত্রিত করে উক্ত মন্ত্রটি ১০৮ বার অভিমন্ত্রিত করে আপনার স্ত্রীর শরীরে লাগাবেন। তাহলে আপনার স্ত্রী আপনার বশীভূত হয়ে যাবে। এই প্রয়োগটি করার পূর্বে অবশ্যই কোন না কোন সিদ্ধ গুরুর অনুমতি সংগ্রহ করতে হবে। আর যদি কোন গুরুর অনুমতি সংগ্রহ করতে না পারেন তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। ধন্যবাদ।।

বি. দ্র: খারাপ কোনো চিন্তা ভাবনা নিয়ে আপনি কখনোই এই ধরনের কাজ করতে যাবে না তাহলে আপনি নিজের ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

[metaslider id=81]

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}