ভূত-প্রেত থেকে দেহ রক্ষা মন্ত্র

ভূত-প্রেত থেকে দেহ রক্ষা মন্ত্রঃ

যে সাধক ভূত-প্রেত ইত্যাদি সমস্ত শ্রেণীর প্রেতযোনিকে মন্ত্র প্রয়োগ করেন, বিতাড়নের কার্য করেন তাদের প্রতি ভূত-প্রেত কখনোই সন্তুষ্ট থাকে না। সামান্য মাত্র সুযোগ পেলেই তাদের প্রাণ নিয়ে নেয়। সেই কারণে বিশেষ মন্ত্র প্রয়োগ করে সাধকের নিজ দেহকে সুরক্ষিত করে চলাফেরা করতে হয়। দেহ বন্ধন না করে এক মুহূর্তও তাদের থাকা উচিত নয়। তাই নিম্ন লিখিত মন্ত্র দুটি আপনাদের কাছে উপস্থাপন করা হলোঃ-

প্রথম মন্ত্র

ওঁ নমো বজ্র কা কোঠা

জিস্‌মেঁ পিণ্ডু্ হমারা ব্যায়ঠা।

ঈশ্‌ওয়র্‌ কুলজী বজ্র কা তালা।

আঠোঁ ইয়াম্ কা হনুমন্ত্‌ রখ্‌ওয়ালা।

দ্বিতীয় মন্ত্র

ওঁ পরমাত্মনে পরব্রক্ষ নমঃ।

মম শরীরং পাহি পাহি কুরু কুরু স্বাহা।

প্রয়োগ বিধিঃ- শনিবার বা মঙ্গলবার উপবাস থেকে সন্ধ্যাকালে কোন দেবমন্দিরে আসনে বসে উপরোক্ত প্রথম মন্ত্র ১০০৮ বার এবং এবং দ্বিতীয় মন্ত্র ১০,০০০ বার জপ করলে মন্ত্র সিদ্ধ হয়ে যায়।

পরে যেকোন একটি সিদ্ধমন্ত্র  ৭ বার জপ করে নিজের পরিধেয় বস্ত্রে গিট দেবেন। ওই বস্ত্র যতক্ষণ পরিধানে থাকবে ততক্ষণ  ভূত-প্রেতাদি কোনো অনিষ্ট করতে পারবে না। বস্ত্র বদলের সময় নতুন বস্ত্রে যথাবিধি গিট দিয়ে পরিধান করাই বিধি।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}