যেকোন বিবাহিতা নারী বা অবিবাহিত নারীকে বশ করে বিয়ে করার উপায়

যেকোন বিবাহিতা নারী বা অবিবাহিত নারীকে বশ করে বিয়ে করার উপায়ঃ

হ্যালো ভিউয়ারস্ লজ্জাতুন নেছা.কম এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। আজ আমরা আপনাদের সামনে যে কোন মেয়েকে বশীভূত করে বিয়ে করার জন্য তার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করব।  আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা মনে মনে কাউকে পছন্দ করে থাকেন কিন্তু তার মনের কথা তাকে বলতে পারেন না।  আবার এমন অনেকেই আছেন যারা কোন একটি মেয়েকে পছন্দ করেছেন কিন্তু পরবর্তী দেখছেন যে তিনি হচ্ছেন বড়লোক  বাপের মেয়ে। আবার অনেক সময় দেখা যায় এমন অনেক জায়গায় আছে যে আপনি যে মেয়েটিকে পছন্দ করছেন সেই মেয়েটি আপনার পরিবারের সাথে মেয়েটির পরিবারের একটি পারিবারিক দ্বন্দ্ব রয়েছে।  আপনি হতে সেই পরিবারের মেয়েকে পছন্দ করেছেন।  কিন্তু কোন ভাবেই আপনি সেই মেয়েটি কে আপনার মনের কথা বলতে পারছেন না।  এছাড়াও আপনি যে কোন মেয়েকে পছন্দ করুন না কেন বা তাকে আপনি  আপনার মনের কথা যদি বলতে না পারেন তাহলে হয়তো আপনি তাকে সারা জীবনের মত হারিয়ে ফেলছেন। এরকম সমস্যায় যদি আপনি পড়ে থাকেন আপনি যদি তাকে সারা জীবনের জন্য পেতে চান তাহলে আজ আমরা আপনাদেরকে এখানে যে গুরু বিদ্যা সম্পর্কে আলোচনা করব সেটি খুব সহজেই প্রয়োগ করে আপনি আপনার মনের মানুষ কে আজীবনের জন্য পেয়ে যেতে পারেন।

 তাহলে চলুন আমাদের সেই গুরু বিদ্যা সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক। তাহলে চলুন প্রথমে আমরা মন্ত্র টি দেখে নিই।

মন্ত্রটি হচ্ছে এই:

“বিসমিল্লাহির রাহমানির রহিম

চৌন্য বিসত্বম হস্বম

অমুকের আত্মা কর নিস্বম

আকাশ কী মাটি

শবর কী কথাটি

শরব গুরু কং মন্ত্র ভর

অমুক কী টিকি ধর

হ্রীং ক্রীং তৌসা সার

অমুকটি কাপ এবার

হ্রীং শ্রীং হই স

অমুক কি দেওয়ানা কর

অং শ্রীং হৈ ঠঃ ঠঃ ঠঃ

বাক্য সাচা ফুরো মন্ত্র

ঈশ্বর বাসা ওঁ নমোঃ নমোঃ”

নিয়ম কানুন: মন্ত্রটি প্রথমে আপনারা খুব ভালো হবে মুখস্থ করে নিবেন।  মন্ত্রটি মুখস্থ করবেন এজন্য মন্ত্রটি যদি আপনারা মুখস্ত করে না নিয়ে থাকেন তাহলে মন্ত্র টি ভুল হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকবে।  মন্ত্র উচ্চারণে যদি ভুল হয়ে থাকে তাহলে মন্ত্র টি প্রয়োগে আপনি কোন প্রকার উপকার পাবেন না।  এজন্য অবশ্যই মন্ত্রটি প্রথমে আগে খুব ভালো হবে মুখস্ত করে নেবেন। মন্ত্রের মধ্যে লক্ষ্য রাখবেন যেখানে অমুকের শব্দটি লেখা আছে সেখানে অবশ্যই আপনি যাকে বশীভূত করতে চাইছেন তার নাম আপনাকে বলতে হবে।  মন্ত্র টি মুখস্ত করা হয়ে গেলে আপনারা মন্ত্রটি সিদ্ধ করে নিবেন।  মন্ত্র সিদ্ধ করার জন্য আপনারা রবিবার দিন পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রেখে আপনারা একহাজর দুইশতবার মন্ত্রটি জপ করবেন।  তাহলে মন্ত্র টি সিদ্ধ হবে।  তারপর আপনারা মন্ত্রটি প্রয়োগ করতে পারবেন।

 প্রয়োগ বিধি:  মন্ত্রটি প্রয়োগ করার জন্য আপনাদের সেভাবে কোন জিনিস পত্র সংগ্রহ করতে হবে না। এই মন্ত্রটি প্রয়োগ করার জন্য শুধুমাত্র আপনাকে সংগ্রহ করতে হবে আপনি যাকে বশীকরণ করতে চাইছেন তার নাম। এই মন্ত্রটি প্রয়োগ করার জন্য আপনি যেকোনো রবিবার অথবা মঙ্গলবার দিন তার দিকে তাকিয়ে এই মন্ত্রটি 21 বার পাঠ করবেন।  ঠিক একইভাবে আপনি যেদিন থেকে মন্ত্রটি তার দিকে তাকিয়ে পাঠ করা আরম্ভ করবেন সেদিন থেকে পরপর তিনদিন পর্যন্ত আপনি একইভাবে মন্ত্রটি জপ করবেন।  তাহলে কাঙ্ক্ষিত ব্যক্তিকে আপনি খুব সহজেই আপনার বশীভূত করতে পারবেন।

বি. দ্র: আপনারা কখনই খারাপ কোন উদ্দেশ্য নিয়ে এই কাজটি করতে যাবেন না। আপনাদের যদি কোন ভালো উদ্দেশ্য থেকে থাকে তাহলে আপনি এই কাজটি করতে পারেন।  আপনি যদি খারাপ কোন উদ্দেশ্য নিয়ে এই কাজটি করে থাকেন তাহলে আপনার সব থেকে বড় ক্ষতি হয়ে যাবে। এজন্য খারাপ কোন উদ্দেশ্য নিয়ে এই কাজটি করা থেকে সম্পূর্ণরূপে বিরত থাকুন। আমাদের মাধ্যমে কাজ করাতে চাইলে আমাদের যোগাযোগ পেজ এ গিয়ে যোগাযোগ করুন। ধন্যবাদ।।

(প্রিয় ভিজিটরগণ এই মন্ত্র টি হয়তো আপনারা দেখেই বুঝতে পেরেছেন যে, কত সহজ ও সাবলীল যে কেউ এই মন্ত্রটি কাজে লাগাতে পারবেন। এই মন্ত্রটি সংগ্রহ করা হয়েছে আমাদের প্রাপ্ত বয়স্কা তান্ত্রিক মহাদয়ের একটি পুস্তক থেকে- (লোক চিকিৎসায় তন্ত্র-মন্ত্র) বই থেকে। আপনারা চাইলে এই বইটি ক্রয় করে নিজের কাজ গুলি নিজে নিজেই করতে পারবেন। আমরা আপনাদের অনুমতি প্রদান করবো ও প্রতিটি কাজের পূর্বে সহযোগীতা করবো। ধন্যবাদ।)