শত্র‌ুর বউকে বা স্ত্রীকে বশ করে বিছানায় আনার উপায়

শত্র‌ুর বউকে বা স্ত্রীকে বশ করে বিছানায় আনার উপায়ঃ

হ্যালো ভিউয়ারস্ www.kokapandit.com এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। আজ আমরা আপনাদের সামনে স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্র এর নতুন আরেকটি প্রয়োগ পদ্ধতি সম্পর্কে সম্পূর্ণ রূপে তুলে ধরব। আজ আপনাদেরকে এখানে যে পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করব এটি খুবই সহজ এবং সরল একটি পদ্ধতি। আপনার স্ত্রী যদি আপনার বাধ্যগত না থাকে তাহলে আপনি চাইলে আপনি এই মন্ত্র প্রয়োগের মাধ্যমে আপনি তাকে খুব সহজেই আপার বাধ্যগত করতে পারবেন। তবে আপনাদের জ্ঞাতার্থে একটি কথা জানিয়ে রাখি আপনার মনে যদি খারাপ কোনো চিন্তা ভাবনা নিয়ে আপনি যদি এই ধরনের কাজ করতে যান তাহলে আপনি নিজে বিপদগ্রস্ত হবেন। আপনি যদি মনে করে থাকেন যে আপনার স্ত্রী তার ইচ্ছা মত চলাফেরা করে বা তার মতন করে সম্পূর্ণ ভাবে থাকে তাহলে আপনি যদি মনে করে থাকেন তাকে সঠিক পথে ফিরিয়ে এনে আপনি আপনার বাধ্যগত করবেন, তাহলে আপনি সে ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে চলুন আমরা প্রথমে এই মন্ত্রটি আগে দেখে নিই –

নারী বশীকরণ মন্ত্রঃ

“ওহম নমো ভগবতী মঙ্গলেশ্বরী সর্বসুখরা।

জিতী সর্বধর মাতেঙ্গী কুমারী কে লঘু-লঘু।

বশং কুরু কুরু স্বাহা।”

প্রয়োজনীয় সামগ্রী: আপনি যদি এই বশীকরণ মন্ত্র টি প্রয়োগ করে আপনার স্ত্রীকে তার বাধ্যগত করতে চান তাহলে আপনার যে সমস্ত প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ করতে হবে তা হচ্ছে শুধুমাত্র সহদেবীর শিকড় আপনাকে সংগ্রহ করতে হবে। তাছাড়া আপনাকে আর তেমন কোন জিনিস সংগ্রহ করতে হবে না।

নিয়ম কানুন: মন্ত্রটি প্রথমে আপনারা খুব ভালোভাবে আগে মুখস্ত করে নেবেন তারপর আপনারা মন্ত্র সিদ্ধ করে নেবেন। অবশ্যই মন্ত্র সিদ্ধ করার আগে মন্ত্রটি খুব ভালোভাবে মুখস্থ করবেন তা না হলে মন্ত্র উচ্চারণে যদি ভুল হয় তাহলে আপনারা যত এটি প্রয়োগ করুন না কেন আপনাদের কোনো ফলাফল আসবে না। এজন্য প্রথমে আগে মন্ত্র টি খুব ভালোভাবে মুখস্থ করে নিন। মন্ত্রটি সিদ্ধ করে নেবার জন্য আপনারা মঙ্গলবার দিন ১০০০ বার যে কোন একটু ভালো সময় নির্ধারণ করে পাক পবিত্রতা বজায় রেখে পাঠ করুন। তাহলে মন্ত্র টি সিদ্ধ হয়ে যাবে তখন আপনারা মন্ত্রটি প্রয়োজনে প্রয়োগ করতে পারবেন।

প্রয়োগ পদ্ধতি: মন্ত্রটি খুব ভালোভাবে সিদ্ধ করে নেয়া হয়ে গেলে আপনি যখন এটি প্রয়োগ করবেন তখন মঙ্গলবার দিন আপনি ভালো একটি সময় বেছে নিয়ে নিজে পাক-পবিত্র হয়ে আপনি যে স্থানে বসবেন সেই স্থানটি খুব ভালোভাবে পবিত্র করে নিন। তারপর আপনি সহদেবীর শিকড় নিয়ে উত্তম মন্ত্রটি সাতশত বিরাশি বার পাঠ করবেন। পাক করা হয়ে গেলে তারপর আপনি উক্ত শেকড় এর উপর ৩ বার ফু দিবেন। তারপর আপনি উক্ত অভিমন্ত্রিত শিকড় আপনার মুখের মধ্যে রেখে আপনি আপনার স্ত্রীর সাথে কথাবার্তা বলুন তাহলে সে আপনার বশীভূত হয়ে যাবে।

বি. দ্র: (অসৎ কোন চিন্তা ভাবনা নিয়ে আপনি কখনো এই কাজটি করতে যাবেন না তাহলে আপনি নিজে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। এই প্রয়োগের পূর্বে অবশ্যই গুরুর অনুমতি গ্রহণ করতে হবে।) যদি আপনি এই প্রক্রিয়াটি অবলম্বন করতে কষ্টকর মনে করেন কিংবা আপনি এই প্রয়োগটি করতে নিজেকে অক্ষম বলে মনে করেন তাহলে আমাদের যোগাযোগ পেজে গিয়ে যোগাযোগ করুন। ধন্যবাদ।