সুন্দরী পর স্ত্রী বশিকরন

সুন্দরী পর স্ত্রী বশিকরনঃ

পৃথিবী সুন্দরে সুন্দর। সৃষ্টিকর্তা সুন্দরের মহিমায় এই পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন। তাই আমরা মানব জাতি সুন্দরের প্রতি বহুল আকৃষ্ট হয়ে পড়ি। তাই আমাদের আজকের আলোচনা সুন্দরী পর স্ত্রী বশিকরন। আমাদের মধ্যে প্রত্যেকটি মানুষের যেমন মন আছে, তেমনি আছে আলাদা আলাদা পছন্দ। তাই আমরা অনেক সময় নিজের জিনিসের প্রতি তেমন আকৃষ্ট না হয়ে অন্যের জিনিসের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ি। তাই গুরুজনেরা বলেন সুন্দরের প্রতি কে না চায়। সবাই সুন্দরের পাগল। অনেক সময় আমাদের আশে পাশে অনেক সুন্দর নারী বা মহিলার দেখা পাওয়া যায়। আর আমরা তাদের দেখে মুগ্ধ হয়ে পড়ি। সেই সুন্দরী মহিলাকে দেখে ভালবাসতে ইচ্ছে করে। শুধু তাই নয় সমাজে অনেকেই আছেন যা অন্যের স্ত্রীকে নীয়ে ঘর বাঁধার স্বপ্ন ও দেখে থাকেন। সেই ভিজিটরগনদের জন্যই আজ আমাদের এই আলোচনা। তাই আপনাদের মাঝে আমি একটি মন্ত্র নিয়ে আলোচনা করবো। আপনারা সবাই সঠিক ভাবে প্রয়োগ করতে পারলে অবশ্যই কার্য সিদ্ধ হবে। তবে খারাপ উদ্দেশ্যে প্রয়োগ করবেন না।

মন্ত্রঃ- “ওঁ নমঃ ক্ষিপ্রকামিনী অমুকীং মে বশমানয় স্বাহা।”

প্রয়োগ বিধিঃ- চন্দ্র বা সূর্য গ্রহণকালে উক্তমন্ত্র ১০,০০০ (দশ হাজার) বার জপ করলে মন্ত্র সিদ্ধ হবে। মন্ত্রে (অমুকীং) স্থলে অভিলষিত নারীর নাম উল্লেখ করতে হবে।

এইভাবে মন্ত্রসিদ্ধর পর প্রাতঃকালে দাঁত মেজে ও মুখ ধুয়ে একটি ঘটিতে জল রেখে, উক্ত মন্ত্রদ্বারা ১০৮ বার অভিমন্ত্রিত করে সেই জল নিজেই পান করবে। সাতদিন প্রত্যহ এই ক্রিয়া করলে সেই নারী বশীভূত হবে।

বিঃদ্রঃ- আগেই বলেছি আবারো বলতেছি কোন অসৎ উদ্দেশ্য কিংবা ফাজলামির জন্য এই ক্রিয়া নহে।

ফেইসবুক এর মাধ্যমে আলোচনাটি আপনাদের বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন। ।।।ধন্যবাদ।।।

ইহা ছাড়াও আমাদের প্রতিষ্ঠান আপনাদেরকে বর্তমানে ফ্রিতেই নারী, স্ত্রী, বিবাহিত মহিলা ও মনপছন্দ রমণী বশীকরণ করার সহজ মন্ত্র ও তন্ত্র দিতেছে। এটা খুব সিমিত সময়ের জন্য। তাই আপনারা আর দেরী না করে এখনি নিচের ছবিতে ক্লিক করুন ও PDF File টি ডাউনলোড করুন। ধন্যবাদ।।।