সুন্দরী স্ত্রী বা রমণী নারী বশীকরণ

সুন্দরী স্ত্রী বা রমণী নারী বশীকরণঃ

আপনার স্ত্রী যদি খুব সুন্দরী হয়ে থাকে, কিংবা আপনার স্ত্রীর প্রতি অন্য বাজে ছেলেদের দৃষ্টি আছে, অথবা আপনার স্ত্রী আপনাকে ফাঁকি দিয়ে অন্য ছেলে বা পুরুষ মানুষের সাথে অবৈধ্য সম্পর্ক করে। আপনার স্ত্রী যদি দুষ্ট হয় তাহলে আপনি নিম্ন লিখিত মন্ত্রটি কাজে প্রয়োগ করতে পারেন।।

“প্রদীপে রহিয়াছে তৈল ঝিকমিক করে ।

 জ্বলিতেছে অগ্নিপাটি মিট মিট করে ।

জ্বলুক অগ্নির সম জ্যোতির রূপেতে ।

উমকা নারীর মন পড়ুক তাহাতে ।

চঞ্চল ছাড়িয়া তারা স্থির হোক মন ।

আমাকে ভজন করে কাটাক জীবন ।।

কার আঙ্গে?

কাউরের কামাখ্যা মায়ের আঙ্গে ।।

অদ্ভুত ইন্দ্রাজাল বা ডাকিনী মন্ত্র

কার আঙ্গ?

হাড়ির ঝি চন্ডীর আঙ্গে ।

অমুকীর অঙ্গে লাগ লাগ লাগ

আমার বাক্য যদি লঙ্ঘে

ঈশ্বর মহাদেবের বাম পদে ঠেকে ”

যাহার স্ত্রী দুষ্টা হয় তাহার স্ত্রীর নাম করিয়া একটি নতুন মাটির প্রদিপ ক্রয় করিয়া উহাতে খাটি সরিষার তেল দিয়া সলিতা দিবে এবং উক্ত মন্ত্রে একশত আটবার অভিমন্ত্রি ত করিয়া সলিতা জ্বলাইলে তাহার এমন বশ্যতা স্বীকার করিবে যে সে যতদিন জীবিত থাকিবে স্বামীর আর অবাধ্য হইবে না ।

বিঃদ্রঃ- উপরোক্ত তদবীরটি কাজে ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আর অনুমতি গ্রহণ করুন। অনুমতি ছাড়া ও সঠিক দিক্ নির্দেশনা ছাড়া এই মন্ত্র বা তন্ত্র বিফলে যাবে ও নিজের ক্ষতি হতে পারে।ৎ

(প্রিয় ভিজিটরগণ এই মন্ত্র টি হয়তো আপনারা দেখেই বুঝতে পেরেছেন যে, কত সহজ ও সাবলীল যে কেউ এই মন্ত্রটি কাজে লাগাতে পারবেন। এই মন্ত্রটি সংগ্রহ করা হয়েছে আমাদের প্রাপ্ত বয়স্কা তান্ত্রিক মহাদয়ের একটি পুস্তক থেকে- (লোক চিকিৎসায় তন্ত্র-মন্ত্র) বই থেকে। আপনারা চাইলে এই বইটি ক্রয় করে নিজের কাজ গুলি নিজে নিজেই করতে পারবেন। আমরা আপনাদের অনুমতি প্রদান করবো ও প্রতিটি কাজের পূর্বে সহযোগীতা করবো। ধন্যবাদ।)