স্ত্রী গর্ভাধান ও পুত্র রত্ন প্রাপ্তির টোটকা। Lojjatun Nesa

স্ত্রী গর্ভাধান ও পুত্র রত্ন প্রাপ্তির টোটকাঃ

লজ্জাতুন নেছার পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন। প্রতিবারের মতো এবারও আমরা আরও একটি নতুন বিষয় নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছে আমাদের আজকের নতুন বিষয় স্ত্রী গর্ভধান ও পুত্র রত্ন প্রাপ্তির টোটকা।  আজ আমরা আপনাদের সামনে যে টোটকা তুলে ধরছি এটি 200 বছরের পুরাতন বই কোকা পন্ডিতের লজ্জাতুন্নেছা থেকে সংগ্রহীত করা হয়েছে।  আজ আমরা আপনাদের সামনে দিয়ে টোটকা তুলে ধরবো এই টোটকা যদি আপনি সঠিকভাবে প্রয়োগ করতে পারেন তাহলে আপনার স্ত্রীর গর্ভাধানের যদি কোনো ধরনের সমস্যা থাকে সে সমস্ত থেকে মুক্তি পেয়ে আপনার স্ত্রী গর্ভবতী হবে এবং আপনি পুত্র রত্ন প্রাপ্ত হবেন।  তাহলে চলুন এই  টোটকা সম্পর্কে যাবতীয় বিষয় জেনে নেয়া যাক-

প্রয়োজনীয় উপকরণ: আপনি যদি এই টোটকা প্রয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে কিছু প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ করতে হবে তাহলে চলুন সে সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-  হলুদ বস্ত্র ও দান ধ্যান করার মানসিকতা।

নিয়ম কানুন ও প্রয়োগ বিধি:  আপনি যদি এই টোটকা প্রয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে প্রয়োজনীয় উপকরণ সংগ্রহ করতে হবে।  তারপর যে স্বামী স্ত্রীর সন্তান হয় না সে ক্ষেত্রে সেই পতি-পত্নী উভয়ই মাসে এক আধ বার হলুদ বস্ত্র বলবে।  তৃতীয় মাসে শ্রদ্ধা সহকারে হলুদ বস্ত্র ও কিছু পয়সা দান করবে।  এছাড়া প্রতিদিন হলুদ বস্তুর প্রতি আকৃষ্ট থাকতে হবে।  এর ফলে স্ত্রী অবশ্যই গর্ভাধান হবে এবং পুত্র রত্ন প্রাপ্তি হবে।

আমাদের এই টোটকা সম্পর্কে যদি আপনাদের কোন ধরনের প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই আপনি আমাদেরকে ইমেইল করতে পারেন এছাড়া অবশ্যই আপনার মতামত জ্ঞাপন করবেন। তাছাড়াও আপনি যদি আমাদের কাছ থেকে কোন ধরনের পরামর্শ চেয়ে থাকেন বা আপনি যদি আমাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে চান তাহলে আমাদের এই ওয়েবসাইটে আলাপন অপশন ব্যবহার করতে পারেন।

যেকোনো ধরনের যন্ত্র মন্ত্র তন্ত্র বশীকরণ ইত্যাদি প্রয়োগ ক্ষেত্রে যে সমস্ত প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রয়োজন হয়ে থাকে সেগুলি যদি আপনি সংগ্রহ করতে সক্ষম না হয়ে থাকেন তাহলে আমাদের এই ওয়েবসাইট হতে আপনি আপনার প্রয়োজন মত প্রয়োজনীয় উপকরন সমুহ সংগ্রহ করতে পারেন।

বি. দ্র: আপনি যে কোন ধরনের টোটকা প্রয়োগ ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার মনের মধ্যে বিশ্বাস রেখে কাজ করবেন তাহলে আপনি অবশ্যই সফলতা পাবেন। লজ্জাতুন্নেছা আপনাদের সামনে যে সকল যন্ত্র মন্ত্র বিভিন্ন কার্য সিদ্ধির জন্য আপনাদের সামনে তুলে ধরছে তা যদি তান্ত্রিক গুরু অথবা সাধকের নির্দেশ ব্যতীত সঠিক পদ্ধতিতে প্রয়োগ না করার ফলে কোন ব্যাঘাত ঘটে তার জন্য লজ্জাতুন্নেছা কখনই দায়ী থাকবে না।