স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্র

হ্যালো জানিয়ে আগের মতোই আজকেও শুরু করছি, আপনাদের সকলকে আমন্ত্রন জানাচ্ছি আমাদের আজকের আলোচনায়, আমাদের আজকের আলোচনা স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্র অর্থাৎ অবাধ্য স্ত্রীকে বশ করা বা সেসকল ভাইদের স্ত্রীরা তাদের কথা শুনে না, স্বামীর কথা মতো চলে না, পরিবারের সকলের সাথে খারাপ ব্যবহার করে, শশুর শাশুড়ীর সাথে খারাপ ব্যবহার করে অথবা স্বামীকে ছেড়ে অন্যের সাথে অবৈধ সম্পর্ক্য স্থাপন করে, যাহা সকলের কাছে মান-সম্মান হানি কারক। সমাজে এমন ও স্ত্রী আছে যারা স্বামীকে ভালোবাসার কথা মুখে বলে আর অন্তরে ভালোবাসে অন্য কাউকে এরকম অবস্থায় আপনি পড়লে কিংবা স্ত্রীর ব্যবহারে আপনি অসন্তুষ্ট হলে আপনি এই সকল মন্ত্র ব্যবহার করতে পারেন। তবে আমাদের আজকের আলোচনার মন্ত্র গুলো খুবই কঠিন প্রয়োগ বিধি। তাই আমরা এক সাথে চারটি মন্ত্র ও তার প্রয়োগ বিধি প্রকাশ করা হলো। তবে এসকল মন্ত্রগুলোর প্রয়োগ বিধি আপনাদের যদি কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়ে। আর যদি আপনারা এই সকল সমস্যার সমূখীন হন। তাহেল আপনি অবশ্যই আমাদের প্রদত্ত ওয়েব সাইটের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে যোগাযোগ করুন। অথবা এ্যডমিনের সাথে ইমেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করুন। চলুন তাহেল মন্ত্র ও তার প্রয়োগ বিধি সম্পর্কে  জেনে নেয়া যাক।

  স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্র-১

মন্ত্রঃ-“ওঁ হ্রীং মহামাতঙ্গীশ্বরী চান্ডালিনী অমুকীং পচ পচ দহ দহ মথ মথ স্বাহা”
চন্দ্র বা সূর্য গ্রহনের দিন উক্ত মন্ত্র ১০,০০০ (দশ ‍হাজার) বার জপ করে সিদ্ধ হতে হবে। মন্ত্রে অমুকীং স্থলে যাকে বশ করবে, সেই নারীর নাম উল্লেখ করতে হবে। তারপর যে কোনও রবিবার পুনরায় ধূপ-দ্বীপ জ্বেলে শুদ্ধবস্ত্রে ১০০৮ (এক হাজার আট) বার জপ করে, উক্ত মন্ত্রে দুগ্ধ ও চিনির সাহায্যে ১০৮ বার হোম করলে সেই নারী বশীভূতা হবে।

স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্রঃ- ২

মন্ত্রঃ-“হ্রাং অঘোরে হ্রীং ঘোর ঘোরতরে সর্বং সর্বে নমস্তে রুপে হ্রঃ ঐং হ্রীং ক্লীং চামুন্ডেয়ৈ বিচ্চে বিচ্চে।”
চন্দ্র বা সূর্যগ্রহনকালে উক্ত মন্ত্র ১০০০০ (দশ হাজার) বার জপ করলে মন্ত্র সিদ্ধ হবে। তারপর যাকে বশ করতে হবে, সেই নারীকে নিমন্ত্রণ করে এনে উক্ত সিদ্ধ মন্ত্রদ্বারা খাদ্যদ্রব্য ১০৮ বার অভিমন্ত্রিত করে খাওয়ালে, সেই নরী সবসময় বশীভুতা থাকে।

স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্রঃ- ৩

মন্ত্রঃ-“ওঁ কুম্ভনী স্বাহা।”
চন্দ্র বা সূর্যগ্রহণ কালে উক্ত মন্ত্র ১০,০০০ (দশ হাজার) বার করে সিদ্ধ হতে হবে। তারপর কোনও সুগন্ধযুক্ত ফুলে (চাঁপা, গোলাপ প্রভৃতি) ১০৮ বার অভিমন্ত্রিত করে যে নারীকে সেই ফুলের ঘ্রাণ নেওয়াবে, সেই নারী অবশ্যই বশীভূতা হবে।

স্ত্রী বশীকরণ মন্ত্রঃ- ৪

মন্ত্রঃ-“ওঁ নমঃ ক্ষিপ্রকামিনী অমুকীং মে বশমানয় স্বাহা।”
চন্দ্র বা সূর্যগ্রহণকালে উক্ত মন্ত্র ১০,০০০ (দশ হাজার) বার জপ করলে মন্ত্র সিদ্ধ হবে।
মন্ত্রে ‘অমুকীং’ স্থলে অভিলষিত নারীর নাম উল্লেখ করতে হবে।
এইভাবে মন্ত্রসিদ্ধির পর প্রাতঃকালে দাঁত মেজে মুখ ধুয়ে একটি ঘটিতে জল রেখে, উক্ত মন্ত্রদ্বারা ১০৮ বার অভিমন্ত্রিত করে সেই জল নিজেই পান করবে, ৭ দিন প্রত্যহ এই ক্রিয়া করলে সেই নারী বশীভূতা হবে।

ইহা ছাড়াও আমাদের প্রতিষ্ঠান আপনাদেরকে বর্তমানে ফ্রিতেই নারী, স্ত্রী, বিবাহিত মহিলা ও মনপছন্দ রমণী বশীকরণ করার সহজ মন্ত্র ও তন্ত্র দিতেছে। এটা খুব সিমীত সময়ের জন্য। তাই আপনারা আর দেরী না করে এখনি নিচের ছবিতে ক্লিক করুন ও PDF File টি ডাউনলোড করুন। ধন্যবাদ।।।