হিন্দু বিবাহিতা নারীকে বশীকরণ করার উপায়

হিন্দু বিবাহিতা নারীকে বশীকরণ করার উপায়ঃ

সিন্দুর পড়াঃ

মদন রাজা দেখতে ভাল ভূলে যেত নারী,

চন্দ্রকন্যা রুপ চাই দোহাই দিয়ে তারি।

ফুল ধনু ফুল বাণ,

করলাম আমি সন্ধান।

অমুকীর টেনে আন প্রাণ,

দোহাই মদন দেবের দোহাই।

ফুল ধনুর দোহাই।।

অশ্বন্থ গাছকে জাড়াইয়া যে নিমগাছ উঠিয়াছে তাহার শিকড় আনিয়া ঐ শিকড় গঙ্গাজল দ্বারা পেষণ করতঃ কালিমাতার সিন্দুর মিশ্রিত করিয়া লইবে এবং যে নারীকে বশীভূত করিতে হইবে তাহার নাম উচ্চারণ করিয়া সাতবার উক্ত মন্ত্র পাঠ করিবে। পরে ঐ সিন্দুরে নিজ ললাটে তিলক প্রদান করিয়া বাঞ্ছিত নারীর নিকট গমন করিয়া তাহার প্রতি দৃষ্টিপাত করিবে। সে পরমাসুন্দরী লাবণ্যবতী মনোরমা কামিনী হইলেও তৎক্ষণাৎ রিত্রিতা দাসীবৎ বশীভুত হইবে।

বিঃদ্রঃ- উপরোক্ত তদবীরটি কাজে ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আর অনুমতি গ্রহণ করুন। অনুমতি ছাড়া ও সঠিক দিক্ নির্দেশনা ছাড়া এই মন্ত্র বা তন্ত্র বিফলে যাবে ও নিজের ক্ষতি হতে পারে।

{বিঃদ্রঃ- আপনি যদি লজ্জাতুন নেছা বইটি সংগ্রহ করেন, তাহলে আপনার পার্শোনাল সমস্যা গুলো আপনি নিজেই সমাধান করতে সক্ষম হবেন তাই আর দেরি না করে আমাদের মোবাইল এ্যডমিনের সাথে এখনি যোগাযোগ করে বইটি ক্রয় করুন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের মোবাইল এ্যডমিন আপনার কাছে বইটি পাঠিয়ে দিবে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে... ধন্যবাদ}