১টি রাতের জন্য যেকোন সুন্দরি মহিলাকে রাতে বিছানায় আনার উপায়!!

১টি রাতের জন্য যেকোন সুন্দরি মহিলাকে রাতে বিছানায় আনার উপায়!!

হ্যালো সুপ্রিয় ভিজিটরসগণ সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভালো আছেন, আজ আমি আপনাদের সামনে মুসলমানী বশিকরন নক্শা নিয়ে উপস্থিত হয়েছি। যার দ্বারা আপনারা যেকোন নারী কিংবা পুরুষকে মুহূর্তের ভিতরেই বশিভূত করতে পারবেন, এমোনি একটি প্রক্রিয়া নিয়ে আজ আমি আপনাদের সামনে উপস্থিত হয়েছি। আজ আমরা এই কার্য্যটি করবো একটি যন্ত্রের মাধ্যমে। যেটা অতি সহজ ও কার্য্যকারী যন্ত্র এর ফলাফল অতি দ্রুতই পাওয়া যায়। নিম্নে এই যন্ত্রটির প্রয়োগ ও যন্ত্রটির অংকনের নিয়ম সমূহ উল্লেখ করা হলো।

যন্ত্রটি এইঃ-

প্রয়োগ বিধিঃ- যেকোন শুক্রবার দিন এই যন্ত্রটি তৈরী করতে হবে। যন্ত্রটি আঁকতে একটি ভূর্জপত্র ও জাফরান কালি লাগবে। তারপর সেই ভূর্জপত্রটির উপর খুব সুন্দর করে জাফরান কালি দ্বারা অংকন করতে হবে। তারপর সেই যন্ত্রটির উপর যেকোন সুগন্ধি বা আতর মাখিয়ে নিবেন, তারপর রাতে যেকোন সুগন্ধি ফুল ও মিষ্টান্ন দ্বারা একটি রাত যেকোন পরিষ্কার থালায় রাখবেন। তারপর পরদিন একটি তাবিজের খোলে সেই ভূর্জপত্রটি ঢুকাবেন ও মোম দিয়ে আটকে দিবেন। তারপর একটি লাল রং এর সুতা দ্বারা হাতে বাঁধবেন।। মেয়ে হলে ডান হাতে বাঁধবেন ও পুরুষ হলে বাম হাতে বাঁধবেন। যন্ত্রটির নিচে উদ্দেশ্যরত ব্যক্তি যদি নারী হয়, তাহলে সেই রমণী নারীর নাম ও তার মায়ের নাম লিখবেন। আর যদি পুরুষ হয় কিংবা কোন প্রেমিকা হয় তাহলে তার নাম ও তার বাবার নাম লিখতে হবে।। এই যন্ত্রটি অতি প্রাচীন কোকা পন্ডিতের লজ্জাতুন নেছা বই থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। তাই এর ফলাফল অনেক কার্য্যকরী ও দ্রুতই পাওয়া যায়। আর যাহারা এই বইটি কিনতে ইচ্ছুক তারা আমাদের কাছ থেকে এই বইটি সংগ্রহ করতে পারবেন এবং বইটির সাথে অনুমতি প্রদান করা থাকছে। তাই আপনারা এই বই ক্রয় করে নিজে নিজেই কাজ করতে সক্ষম হবেন।।

বিঃদ্রঃ- উপরোক্ত যন্ত্রটি যদি কোথাও বুঝতে অসুবিধে হয় কিংবা কোন কিছু যদি জানার ইচ্ছা হয় তাহলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। এই প্রয়োগটি করতে অবশ্যই গুরুর অনুমতি প্রয়োজন হবে। তাই আপনার এলাকার কোন তান্ত্রিক গুরুর অনুমতি নিয়ে এই কার্য্যটি সম্পন্ন করবেন। আর যদি কোন গুরুর অনুমতি গ্রহণ করতে না পারেন তাহলে আমাদের সাথে ‍যোগাযোগ করুন ও সল্প হাদিয়া দিয়ে অনুমতি গ্রহণ করুন। ধন্যবাদ।।।