যেকোন পুরুষ বা প্রেমিককে বশিভূত করে মিলন করুন

যেকোন পুরুষ বা প্রেমিককে বশিভূত করে মিলন করুন

যেকোন পুরুষ বা প্রেমিককে বশিভূত করে মিলন করার মন্ত্রঃ আপনি যে মানুষটিকে প্রচন্ড ভালবাসেন কিন্তু সে যদি আপনার ভালবাসা প্রত্যাখান করে দেয়, তাহলেই আপনি এই মন্ত্র ও প্রয়োগটি ব্যবহার করতে পারবেন। আবার দেখা যায় অনেকের পরিবারে স্বামী স্ত্রীর সম্পর্কটা কেন জানি সাপ আর বেজির মতো হয়েগেছে। ঠিক তখনি এই মন্ত্রটিও ব্যবহার করা প্রযোজ্য। তবে আপনি যদি কোন প্রেমিক বা পুরুষকে বশ করতে এই মন্ত্রটি প্রয়োগ করতে চান তাহলে অবশ্যই তাকে সারাজিবনের জন্য জিবন সঙ্গী বানাতেই…

Read More

প্রেমিক ও প্রেমিকার মিলনের পরীক্ষিত তদবীর

প্রেমিক ও প্রেমিকার মিলনের পরীক্ষিত তদবীর

প্রেমিক ও প্রেমিকার মিলনের পরীক্ষিত তদবীরঃ বিভিন্ন সমস্যার কারণে অনেক দিনের গভীর প্রেমের সম্পর্ক ও বিছিন্ন হয়ে যায়। এই অসমাপ্ত ভালবাসা বা প্রেম কে নিয়ে অনেক ধরণের সমস্যায় পড়ে যায় অনেক প্রেমিক ও প্রেমিকারা। তাই এই সকল অসমাপ্ত প্রেম ভালবাসাকে ফিরে আনতে বা সম্পর্ক অটুট রাখতে নিম্নের তদবীরটি প্রয়োগ করতে পারেন।। এই তদবীরটি অনেক ফলদায়ক ও কার্য্যকরী।।। আশেক ও মাশুকের মধ্যে মহব্বত সৃষ্টি এবং মিলনের জন্য এই তদবীরটি পরিক্ষিত এবং আশ্চর্য্য রকমের ফলদায়ক। ইহা চার…

Read More

পতি বশীকরণ

পতি বশীকরণ

পতি বশীকরণ তিলকঃ বিবরণঃ-কে না চায় যে তার স্বামী তাকে ভালোবাসুক তার কথামতো তাকে আদর যত্ন করুক। সারাক্ষণ পাশে থেকে তাকে সময় দেউক। ঠিক তাদের জন্যই এই আলোচনা। আপনার অবাধ্য স্বামীকে আপনি যদি নিজের বশে আনতে চান? তাহলে নিচের দেওয়া প্রক্রিয়াটি ব্যবহার করতে পারবেন। ১। শ্বেত অপরাজিতার মূল গোরোচনাসহ পেষন করে কপালে তিলক ধারণ করে পতির নিকট গমন করলে সে বশীভূত হবে। ২। মনঃশীলা, কুঙ্কুম, শ্বেত-সরিষা, বচ, কুড়, দেবদারু, রক্তচন্দন ও নিজের দেহের রক্ত একত্রে…

Read More

প্রেমিকা বশিকরন

প্রেমিকা বশিকরন

রক্তচামুন্ডা মন্ত্রে বশীকরণঃ বিবরণঃ- প্রত্যেক মানুষের নিজ পছন্দ ও মন থেকে ভালো লাগা আলাদা আলাদা মনের মানুষ থাকতেই পারে আর তা জীবন সঙ্গিনী বাছাই করার ক্ষেত্রে তো বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু সব সময়ই কি আর দুজনের পছন্দ সমান হয়???? তাই আজ আমাদের বিষয় মনপছন্দ মেয়ে বশীকরণ মন্ত্র। নিম্ন লিখিত মন্ত্রটি আপনি যদি ঠিক ঠাক মতো প্রয়োগ করতে পারেন। তবেই আপনার কাজ হাসিল হবে। মন্ত্রঃ-“ওঁ রক্তচামুন্ডে অমুকং যে বশমামায় স্বাহা। ওঁ দ্রীং হ্রৌং হুং ফট্‌”…

Read More